chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

সইতে পারেননি দায়িত্বের ভার, তার আগেই খুলে গেল রবের দুয়ার

মহাপরিচালক হয়েই মারা গেলেন মুফতি আব্দুস সালাম

নিজস্ব প্রতিবেদক : মুফতি আব্দুস সালাম, সদ্য নির্বাচিত হয়েছিলেন হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক হিসেবে। কিছুক্ষণ পরেই হয়তো দায়িত্বের ভার নিতেন নিজের কাঁধে ।সেই তিনি চলে গেলেন রবের দুয়ারে তাঁর অসংখ্য ছাত্রের কাঁধে ভর করে। আজ বুধবার মাদ্রাসার শূরা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। 

হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সকাল ১০টায় হাটহাজারী মাদ্রাসার মজলিসে শূরার গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশন বসে। বেলা সাড়ে ১১টা দিকে মুফতিয়ে আজম আব্দুস সালাম চাটঁগামী হঠাৎ ইন্তেকাল করেন। তিনি দু’তিন দিন ধরে হালকা জ্বর ও কাশি অনুভব করছিলেন।

জানা যায়, এদিন সকাল ১০টার দিকে আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে হাটহাজারী মাদ্রাসার শূরা কমিটির বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে মাদ্রাসার বর্তমান পরিচালনা কমিটির সদস্যরাসহ শূরা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ মুফতি আব্দুস সালাম চাটগামীকে ‘মহাপরিচালক’ করা হয়। পাশাপাশি মাওলানা শেখ আহমদকে প্রধান শায়খুল হাদিস এবং মাওলানা ইয়াহইয়াকে সহাকারী পরিচালক করা হয়।

শূরা কমিটির বৈঠকের শেষদিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন মুফতি আব্দুস সালাম। পরে তাঁকে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর হাটহাজারী মাদরাসার দীর্ঘকালের মহাপরিচালক আল্লামা আহমদ শফী ইন্তেকাল করেন। এরপর মুফতী আব্দুস সালাম চাটগামীকে প্রধান করে আল্লামা শেখ আহমদ ও মাওলানা ইয়াহিয়াকে সদস্য করে একটি পরিচালনা পরিষদ গঠন করা হয়। এরপর গত ১৯ আগস্ট আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেন। তিনি মাদরাসার শাইখুল হাদিস হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। পরবর্তী মহাপরিচালক কে হবেন সেটা নিয়েই চলছিল আজকের শূরা কমিটির বৈঠক। যেখানে সকলের মতামতের ভিত্তিতে আব্দুস সালাম চাটগামীকে পরিচালক নির্বাচিত করা হয়েছিল।

 

এসএএস/জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...