chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

বিশ্বকে কঠিন বার্তা দিতে চান মেহেদি

ক্রীড়া প্রতিবেদক: টেস্ট, ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি– তিন ফরম্যাটেই বাংলাদেশের সাম্প্রতিক বোলিং পারফরম্যান্স দুর্দান্ত। মোস্তফিজুর রহমানের ধার বেড়েছে। তাসকিন আহমেদ ফিরেছেন দুর্দান্তভাবে। মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনরা আছেন। পেস আক্রমণে নতুন করে যুক্ত হয়েছেন তরুণ শরিফুল ইসলাম

স্পিন বিভাগে সাকিব আল হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজদের সঙ্গে যোগ দিয়ে দারুণ পারফর্ম করছেন নাসুম আহমেদ, শেখ মেহেদি হাসানরা। বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ এখন কতোটা ধারালো সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়া সিরিজেই সেটা ভালোভাবে টের পাওয়া গেল। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের কোন ম্যাচেই ১২০-এর গণ্ডি পেরুতে পারেননি অস্ট্রেলিয়া। শেখ মেহেদি হাসান বলছেন, এই ধারাটা অব্যাহত রাখার লক্ষ্য বোলিং ইউনিটের, যাতে অন্য দলগুলো একটা বার্তা পায়।

সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়া সিরিজে বাংলাদেশের বোলিং ইনিংসের সূচনা করেছেন শেখ মেহেদি। দুর্দান্ত অফ স্পিনে শুরুতে ব্রেক থ্রু এনে দিয়েছেন প্রায় প্রতি ম্যাচেই। যাতে স্বভাাবিকভাবেই পরবর্তী বোলাররা পেয়েছেন বাড়তি আত্মবিশ্বাস। বিষয়টি উল্লেখ করে মেহেদি বলেন, ‘আপনি যদি দলের বোলিং ইউনিট দেখেন, শুরুটা ভালো করতে পারলে অন্য বোলারদের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। টি-টোয়েন্টি খেলায় আসলে প্রথম দু-একটি ওভার দেখলেই বোঝা যাবে, কোন দিকে ম্যাচটি যাচ্ছে। আমাদের দলে যে বোলার আছে, তারা তাদের জায়গা থেকে খুব ভালো করছে। এভাবে চলতে থাকলে আমাদের বোলিং ইউনিট খুব ভালো একটা ম্যাসেজ দিতে পারবে বাংলাদেশ দলে বাং অন্য দলগুলির জন্য।’

আসন্ন নিউজিল্যান্ড সিরিজকে সামনে রেখে অনুশীলনে ঘাম ঝড়াচ্ছে বাংলাদেশ দল। অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে মেহেদি আরও বলেন, ‘আমাদের দলে মুস্তাফিজ আছে, সাকিব ভাই আছে, শরিফুল খুব ভালো করছে। যার যার থেকে সবাই ভালো করছে এবং আমার নিজের আরও উন্নতি করতে হবে। বাংলাদেশকে দলকে সামনে এগিয়ে নেওয়ার জন্য নিজেকে আরও মেলে ধরতে হবে।’

অলরাউন্ডার মেহেদিকে নিজের ব্যাটিং নিয়ে আক্ষেপও করতে হলো। ব্যাট হাতে বড় রানের দেখা পাচ্ছেন না। অস্ট্রেলিয়া সিরিজে সুযোগ পেয়েছিলেন প্রথমবার তিন নম্বরে ব্যাটিং করার, যেখানে বড় স্কোর গড়ার ভালো সুযোগ থাকে। একটা ম্যাচে ওপেনিংয়েও নামানো হয়েছিল তাকে। সফল হতে পারেননি তরুণ অলরাউন্ডার।

তবে ১৪ টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে পাঁচটি আলাদা পজিশনে ব্যাটিং করেছেন মেহেদি, যার বেশিরভাগই অবশ্য নিচের দিকে। তরুণ ক্রিকেটার বলেছেন, চেষ্টা করছেন উন্নতি করার, ‘অবশ্যই ব্যাটিংয়ে ভূমিকা (নিজের) দলের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। সেটা ১০ রান হোক বা ৫ রান বা ২০ রান। আমি যে পজিশনে ব্যাট করি আসলে তখন ১০০ মারার সুযোগ থাকে না, ৫০ মারারও সুযোগ থাকে না। তখন ১০ রানই খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যায়। যদি ৫ বলে বা ৬ বলে ১০ করি, দলকে অনেক এগিয়ে দেয়। বাংলাদেশ দলে মাঝেমধ্যে ওপরেও খেলতে হয়, তখন একটা সুযোগ থাকে (বড় রান করার)। এই সুযোগটা আমি এখনও পর্যন্ত কাজে লাগাতে পারিনি। একটা সুযোগ থাকে ওইখানে টি-টোয়েন্টিতে বেশ কিছু রান করার। আমি সবসময় চেষ্টা করি নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য। দলের পছন্দমতো যেখানে ম্যানেজমেন্ট থেকে বলা হয়, আমি চেষ্টা করি সেখান থেকে উন্নতি করার।’

সবকিছু ঠিক থাকলে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজটা শুরু হবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে। বিকেল ৪টা থেকে সিরিজের প্রতিটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...