chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

প্রতিপক্ষের হামলায় ঘর ছাড়া স্কুল শিক্ষিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের কর্ণফুলী এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলা শিকার হয়ে ঘর ছাড়া হয়েছেন সুমি আক্তার নামে এক স্কুল শিক্ষিকা।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাসে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি নিরাপদে ঘরে ফেরার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
লিখিতে বক্তব্যে সুমি আক্তার বলেন, আমদের গ্রামের বাড়ি কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা গ্রামে। মরিয়ম আশ্রম উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে বর্তমানে শিক্ষকতা করছি। অত্র এলাকায় ত্রাস নামে খ্যাত আব্দুল শুকুর প্রকাশ তেল চোর শুকুর ও তার তিন ছেলে মনির প্রকাশ ইয়াবা মনির , দেলোয়ার হোসেন এবং কিশোর গ্যাং লিডার হৃদয়ের জুলুমবাজ নির্যাতনকারী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অতিষ্ট। আব্দুল শুক্কুর পটিয়া ও কর্ণফুলী উপজেলায় একজন চিহ্নিত তেল চোরা কারবারী, ভূমিদস্যু, জলদস্যু নামে পরিচিত। তিনি দীর্ঘ ১০-১৫ বছর যাবত কর্ণফুলী নদীর বহিনোঙরে আসা-যাওয়া তেলবাহী জাহাজ থেকে অবৈধ উপায়ে চোরাকারবারের সঙ্গে জড়িত। সরকারের অনুমোদিত ডিলার পদ্মা, মেঘনা ও যুমনা অয়েল কোম্পানীতে তৈল সরবরাহের জাহাজ থেকে দৈনিক হাজার হাজার লিটার ডিজেল ও অকটোনসহ বিভিন্ন দামী যন্ত্রাংশ লুট করে কম দামে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করে লাখ লাখ টাকার মালিক হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, তেল লুটের পাশাপাশি বেশ কয়েক বছর যাবত এই চোর শুকুর ও তার ছেলে ইয়াবা কারবারী, ক্যাসিনো ও অনলাইন ভিত্তিক জুয়ার আসর পরিচালনাকারী ইয়াবা মনির কর্ণফুলী এলাকায় বিভিন্ন কিশোর গ্যাং গড়ে তুলে। যাদেরকে নিয়ে কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা ইউনিয়নের পাইপের গোড়া, ডাঙ্গারচরগ্রামে বিভিন্ন প্রকার ভূমির অবৈধ দখলদার, চাদাবাজী ও বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী করে সমাজ ও রাষ্ট্রবিরোধী কার্যক্রমে লিপ্ত রয়েছে। প্রশাসন এদের বিরুদ্ধে কোন ধরনের কার্যক্রম গ্রহণ না করায় তারা দিন দিন আরো বেশী বেপরোয়া হয়ে এলাকায় অনৈতিক কর্মকান্ড করে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে হয়রানী করছে। প্রশাসনের কিছু দুস্কৃতিকারী ও কিছু রাজনৈতিক নেতাকে মাসাওহারা দিয়ে আরো বেশী উগ্র হয়ে সন্ত্রাসী কার্যক্রমে লিপ্ত হচ্ছে ।
এরই ধারাবাহিকতায় তেল চোর শুকুর ও মনিরের এই অবৈধ কর্মকান্ড বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ও মিডিয়ায় প্রচারের পিছনে আমি ও আমার পরিবার জড়িত সন্দেহে গত ৯ সেপ্টেম্বর আকস্মিকভাবে ধারালো অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের বাড়ীতে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে আমাদের বাড়ী আক্রমন করে। এতে আমার ডান হাতে ছুরি দিয়ে আঘাত করে ও আমার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরকে মারধর করে । আমার আঘাত গুরুতর হওয়ায় আমার পরিবারের সদস্যরা আমাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করান। এছাড়াও আমার বৃদ্ধ পিতার বাম হাতে ৩ টি কোপ দেয়। আমার মাকে মারধর করে মারাত্মকভাবে আহত করে। বড় ভাইকেও মেরে জখম করে। ফলে তাদের ভয়ে আমরা অত্যন্ত অসহায় ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। বর্তমানে আমরা ঘরবাড়ী ছেড়ে বাইরে অবস্থান করছি। এলাকায় যেতে সাহস পাচ্ছি না। এমতাবস্থায় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি এবং প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। যাতে আমাদের জীবন জীবিকা নিরাপত্তা প্রদান করে দোষী ব্যক্তিদেরকে অনতিবিলম্বে গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় নিয়ে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানাচ্ছি।
সংবাদ সম্মেলনে তার পরিবারে সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এসএএস/নচ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...