chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

সাতকানিয়ায় পেটভর্তি ইয়াবা নিয়ে ধরা তিন রোহিঙ্গা কিশোর

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া এলাকায় পেটের মধ্যে ৫ হাজার ৩৯০ পিস ইয়াবাসহ তিন রোহিঙ্গা কিশোরকে আটক করেছে র‍্যাব। বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে মহাসড়কের মৌলভীর দোকানের জাফর আহমদ চৌধুরী কলেজ গেটের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। 

আটকৃত তিন কিশোর হলো- মো. তারেক (১৯), আব্দুল শুক্কুর (২৪) ও নুর হাসান (১৪)। এছাড়া ক্যাম্প ছেড়ে পালানো বশির আহমদ (১৪), মো. আয়াস (১৩) এবং শামসুল আলম (১৪) নামে আরো তিন কিশোরকে একই বাস থেকে আটক করা হয়েছে।তারা সবাই টেকনাফের ২৪ নম্বর লেদা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

জানা যায়, র‍্যারের একটি টিম চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে টহল ডিউটির সময় খবর পায় হানিফ পরিবহনের একটি বাসে করে ইয়াবা পাচার হচ্ছে। তথ্যানুযায়ী হানিফ পরিবহনের বাসটি মহাসড়কের মৌলভীর দোকান জাফর আহমদ চৌধুরী কলেজের সামনে পৌঁছলে র‍্যাবের সংকেতে থামে। পরে র‍্যাব বাসের হেলপারের সহযোগিতায় পুরো বাসে তল্লাশি শুরু করে।

এসময় বাসের শেষ প্রান্তে জে-ওয়ান থেকে জে-থ্রি পর্যন্ত সিটে তিন কিশোরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা অসংলগ্ন কথা বলতে থাকে। একপর্যায়ে গ্রেপ্তার তারেক বমি করে ৯ প্যাকেট ইয়াবা বের করে দেয়। আটক অন্যান্যরাও স্বীকার করে নেয় তাদের পেটে ইয়াবা আছে। তখন রাত ৯টার দিকে তাদের নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।পরে চিকিৎসকের পরামর্শে এক্সরে করে পেটে ইয়াবা থাকার সত্যতা পেলে ডাক্তারের দেওয়া ওষুধ খাইয়ে ধীরে ধীরে গ্রেপ্তার আসামিদের পেট থেকে ৪ হাজার ৯৪৯ পিস ইয়াবা বের করে করে আনা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে পেটের ভেতরে করে কক্সবাজার থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইয়াবা পাচার করে আসছে।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, র‌্যাব ছয় রোহিঙ্গা কিশোরকে থানায় হস্তান্তর করেছে। এদের মধ্যে তিন কিশোর পেটে করে ইয়াবা পাচারে জড়িত। তাদের কাছ থেকে ইয়াবাও জব্দ করা হয়েছে। ইয়াবাসহ আটক তিন কিশোরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। আর অন্য  তিন কিশোরকে ক্যাম্পে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...