chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

চবি কর্মচারীকে মারধর ও চাকরি খেয়ে ফেলার হুমকি!

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক কর্মচারীকে মারধর ও উপাচার্যের ক্ষমতা দেখিয়ে চাকরিচ্যুত করার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম শহীদের বিরুদ্ধে। ভূক্তভোগী ওই কর্মচারী বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকসু কেন্দ্রের নিম্নমান সহকারী ইমতিয়াজ আহমেদ।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ ঘটনার সুবিচার দাবি করে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তিনি। অভিযোগপত্রে তিনি লিখেন, গত ৭ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১১টার সময় অফিসে কর্মরত অবস্থায় একটি আসনে আমার বসাকে কেন্দ্র করে চাকসু কেন্দ্রের কর্মচারী ও কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল ইসলাম শহীদ আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন।

এক পর্যায়ে চড়-থাপ্পড় দিয়ে আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে লাঞ্চিত করেন। এছাড়াও তিনি প্রায় সময় মাননীয় উপাচার্য মহোদয়ের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন রকমের হুমকি-ধমকি দিয়ে থাকেন এবং চাকুরী খেয়ে ফেলবেন বলে ভয় ভীতি দেখান। তার এমন আচরণে আমি সার্বক্ষণিক মানসিকভাবে অশান্তিতে দিনাতিপাত করছি।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, চেয়ারে বসা নিয়ে শহীদের সাথে আমার বাকবিতণ্ডা হয়। সে আমাকে অনেকগুলো চড় থাপ্পড় মারে এবং চাকরি খেয়ে ফেলার হুমকি দেন।

তিনি আরও বলেন, আজকে (বুধবার) অফিসার সমিতির নেতৃবৃন্দ ও কর্মচারী সমিতির সদস্যদের উপস্থিতিতে একটা বৈঠক হয়। সেখানে শহীদ আমার কাছে ক্ষমা চান এবং চিঠি উইড্রো করার অনুরোধ জানান।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম শহীদকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, আমরা চিঠি পেয়েছি। অফিসিয়ালি ব্যবস্থা নেব।

এর আগে গত ৪ মার্চ কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম শহীদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব নিয়ামক দপ্তরের বেতন ও ভাতা শাখা-২ এ কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগও উঠেছিল।

এসএএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...