chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

বিমানবন্দরে পিসিআর টেস্টের নির্দেশনায় সুজনের কৃতজ্ঞতা

ডেস্ক নিউজ: দেশের তিন বিমানবন্দরে করোনা শনাক্তে পিসিআর টেস্ট নিশ্চিত করার নির্দেশ প্রদান করায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন।

আজ সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

এ সময় তিনি বলেন, করোনাকালীন সময়ে প্রবাসীরা ছুটিতে দেশে আসলেও শুধুমাত্র বিমানবন্দরসমূহে পিসিআর টেস্টের ব্যবস্থা না থাকায় তারা স্ব স্ব কর্মস্থলে ফিরে যেতে পারছেন না। এতে করে অনিশ্চয়তায় পড়েছেন কয়েক হাজার সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী।

‘সঠিক সময়ে কাজে যোগদান করতে না পারলে অনেকের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে কাজও হারাতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন আমাদের প্রবাসীরা। ফলে নতুন করে কাজে যোগদান করতে তাদেরকে অনেক ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হবে।’

তিনি বলেন, করোনাকালেও আমাদের রেমিটেন্সের অন্যতম যোগান দাতা আমাদের প্রবাসীরা তাদের হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে কষ্টার্জিত অর্থ দেশে পাঠিয়ে অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করেছে।

‘উদ্ভুত পরিস্থিতিতে প্রবাসীরা পিসিআর টেস্টের দাবিতে বিভিন্নভাবে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করে। নাগরিক উদ্যোগের সাথেও মতবিনিময় করে এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে অনুরোধ জানান প্রবাসীরা।’

নাগরিক উদ্যোগ ইতোপূর্বে বক্তৃতা এবং বিবৃতির মাধ্যমে দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিমানবন্দরসমূহে পিসিআর টেস্ট নিশ্চিত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নিকট অনুরোধ জানিয়েছে।

‘এরই ফলশ্রুতিতে আজ অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে দেশের তিন বিমানবন্দরে জরুরি ভিত্তিতে পিসিআর টেস্ট নিশ্চিত করার নির্দেশনা প্রদান করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।’

মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, ‘অনেকগুলো দেশ বিমান উড্ডয়নের চার, ছয় অথবা আট ঘন্টার মধ্যে যাত্রীদের পিসিআর পরীক্ষার দাবি জানিয়ে আসছে। আজকে এ ব্যাপারে সুস্পষ্ট নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দুই বা তিন দিনের মধ্যে বিমানবন্দরেই একটা টেস্টিং ফ্যাসিলিটিজের ব্যবস্থা করতে হবে।’

সুজন বলেন, এর ফলে দেশে অপেক্ষমান প্রায় ৬ থেকে ৭ হাজার আরব আমিরাত প্রবাসী অতিসত্বর তাদের স্ব স্ব কাজে যোগদান করতে পারবেন। এ ঘোষণার ফলে দেশে আটকে থাকা প্রবাসী ছাড়াও তাদের পরিবার পরিজন ভয়াবহ উৎকন্ঠা থেকে মুক্তি পাবে।

তিনি আরো বলেন, প্রবাসীদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ মনযোগ এবং নির্দেশনা প্রবাসীগণ আজীবন শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করবে।

এ ছাড়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নির্দেশনায় দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি জেদ্দা-মদিনা ফ্লাইট পুনরায় চালু করায় প্রধানমন্ত্রী এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান সুজন।

প্রধানমন্ত্রীর দুই দুইটি কার্যকরী নির্দেশনার ফলে প্রবাসীরা নিশ্চিন্তে তাদের কাজে মনোনিবেশ করতে পারবেন এবং এতে করে রেমিটেন্স আয়ও আগের চেয়ে বৃদ্ধি হবে বলে প্রত্যাশা সুজনের।

তবে পিসিআর টেস্ট নিয়ে বিমানবন্দরসমূহে যাতে কোন প্রবাসী ভোগান্তিতে না পড়েন সেদিকে সচেষ্ট থাকতে বিমানবন্দর সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান তিনি।

আরএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...