chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

দেশে ২৪ ঘন্টায় করোনায় ৬৫ মৃত্যু

ডেস্ক নিউজ: দেশে আগের দিনের তুলনায় করোনাভাইরাসে মৃত্যু কমলেও সংক্রমণ বেড়েছে। নতুন করে মারা গেছেন ৬৫ জন। আগের দিন এ সংখ্যা ছিল ৭০। এ পর্যন্ত করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ হাজার ৬২৮ জনে।

এছাড়া আগের দিন ২ হাজার ৪৩০ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হলেও গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ হাজার ৭ শ ১০ জনে। এতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ১৭ হাজার ১৬৬ জনে।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ১২৪ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৫৫ হাজার ১৮৭ জন।

বিজ্ঞপ্তির তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে যে ৬৫ জন মারা গেছেন, এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃত্যু দাঁড়াল ২৬ হাজার ৬২৮ জনে। সংক্রমণ বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩২ জন, নারী ৩৩ জন। এই ৬৫ জনের সবাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭৯৭টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১৩৯টি, জিন এক্সপার্ট ৫৪টি, র্যাপিড অ্যান্টিজেন ৬০৪টি।

এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ২৭ হাজার ৮৪২টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ হাজার ৫৯৫টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯০ লাখ ৯১ হাজার ৬১০টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার নয় দশমিক ৮২ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৬৯ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৫ দশমিক ৯১ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৬৫ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৭ জন ঢাকা বিভাগের, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ জন চট্টগ্রাম বিভাগের। এছাড়া রাজশাহী বিভাগের ছয় জন, খুলনা বিভাগের ১০ জন, বরিশাল বিভাগের তিন জন, সিলেট বিভাগের ১০ জন, রংপুর বিভাগের চার জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের দুই জনের মৃত্যু হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সাত জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২৪ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন রয়েছেন।

আরএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...