chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

বিআরটি প্রকল্পের কাজ শেষ হলে মহাসড়কে ভোগান্তি থাকবে না

ডেস্ক নিউজ: সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী বছর ডিসেম্বর মাসে বিআরটি প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। ইতোমধ্যে এই প্রকল্পের ৬৩ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

‘চলমান কাজ শতভাগ শেষ হলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ভোগান্তি থাকবে না। তাছাড়া আগামী বছর বহু কাঙ্ক্ষিত মেগা প্রকল্প পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, চট্টগ্রামের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্ণফুলী টানেল এর সঙ্গে বিআরটি প্রকল্প মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করতে পারবেন।’

আজ শুক্রবার (০৩ সেপ্টেম্বর) সকালে গাজীপুরের টঙ্গীতে বিআরটি প্রকল্পের চলমান কাজ পরিদর্শনে গিয়ে মন্ত্রী এসব কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, গাজীপুর থেকে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর পর্যন্ত চলমান বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পটি জনগণের জন্য অনেক বিড়ম্বনা ও ভোগান্তির কারণ হয়েছে।

‘এখানে সড়কের পাশে ড্রেনেজ সিস্টেমটি অত্যন্ত খারাপ, যে কারণে বর্ষাকালে ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। আশা করছি, এ ভোগান্তি এবার থাকলেও আগামী বর্ষায় আর থাকবে না।’

মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের বিআরটি প্রকল্পের কাজের সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৬৩ দশমিক ২৭ শতাংশ। আশা করছি, পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, চট্টগামের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্ণফুলি টানেলের সঙ্গে আগামী বছর ডিসেম্বরে বিআরটি প্রকল্পও প্রধানমন্ত্রী শুভ উদ্বোধন করতে পারবেন। আমরা সেই প্রতীক্ষায় আছি।

তিনি বলেন, বিআরটি প্রকল্পের জন্য গাজীপুরসহ উত্তরবঙ্গের মানুষ অনেক কষ্ট করেছেন। এখানে তাদের অনেক সমস্যা হয়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা মানুষ রাস্তায় কষ্ট করেছেন। আশা করছি, সড়কে আগামী বর্ষাকালে এ ভোগান্তি আর হবে না। তিনি আরও বলেন, এ পথে বিআরটি চালু হলে দুই পাশে প্রতি ঘণ্টায় ২০ হাজার যাত্রী যাতায়াত করবে।

এ সময় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের (মহাসড়ক বিভাগ) সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বিআরটির পরিচালক মো. সফিকুল ইসলাম, সওজের প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুস সবুর, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. সবুজ উদ্দিন খান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (ঢাকা সার্কেল) মো. আতাউর রহমান, গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. জাকির হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...