chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

মেটাবলিজম বাড়ানোর সহজ ৫ উপায়

চট্টলা ডেস্ক: শরীর সুস্থ এবং সক্রিয় রাখার জন্য মেটাবলিজম গুরুত্বপূর্ণ। এই রাসায়নিক বিক্রিয়া শরীরের কার্যকারিতার জন্য দরকারি। আমাদের গ্রহণকৃত খাদ্যকে শক্তিতে রূপান্তরিত করার পদ্ধতিকে মেটাবলিজম বলে। এই মেটাবলিজম বা বিপাকীয় হার যত বেশি হবে, তত বেশি ক্যালোরি ঝরবে। শরীরে মেটাবলিজম বৃদ্ধি পেলে তা আপনাকে উদ্যমী হতে এবং সারাদিন সতেজ রাখতে সাহায্য করবে।

জেনে নিন মেটাবলিজম বাড়ানোর সহজ ৫ উপায়-

দিন তাড়াতাড়ি শুরু করুন

একটি স্বাস্থ্যকর দিন শুরু করার জন্য রাতে ঘুম ভালো হওয়া জরুরি। ঘুম ভালো হলে তা ওজন কমার সম্ভাবনা অনেকটা বাড়িয়ে দেয়। প্রতিদিনের ব্যস্ততায় এটি আপনাকে ক্লান্ত হওয়া থেকে রক্ষা করে।

খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠলে সারাদিন ফুরফুরে মেজাজে থাকবেন। সকালের খাবার আগেভাবে গ্রহণ করলে মেটাবলিজম বৃদ্ধি পাবে অনেকটাই। পাশাপাশি দিনটি হবে সুন্দর ও প্রসারিত।

অফিসেও সক্রিয় থাকুন

বেশিরভাগের ক্ষেত্রে অফিসেই কাটে দিনের অনেকটা সময়। এরপর যখন বাড়িতে ফেরেন, তখন আর জিমে যাওয়া বা অন্য কোনো কাজ করার শক্তি থাকে না। তাই মেটাবলিজম বা বিপাক ক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য কর্মক্ষেত্রে সক্রিয় থাকার চেষ্টা করুন।

যতই ব্যস্ততা থাকুন, ঘণ্টাখানেক পরপর ছোট একটি বিরতি নিন। হাঁটাহাঁটি করুন, চা-কফি খান, সহকর্মীর খোঁজ-খবর নিন। এতে আপনার কাজের কোনো ক্ষতি হবে না। বরং উৎপাদনশীলতা এবং কাজে মনোনিবেশ করার ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

দুপুরের খাবারে পুষ্টিকর খাবার খান, যার মধ্যে প্রোটিন এবং অন্যান্য বিপাক-বৃদ্ধির উপাদান রয়েছে। নাস্তা হিসেবে অস্বাস্থ্যকর খাবার খাবেন না। চিপস, চকলেট, কেক এবং ক্যান্ডি ইত্যাদি এড়িয়ে যান।

স্মার্টলি খান

কিছু খাবার আছে যা আপনাকে ক্যালোরি ঝরাতে সাহায্য করতে পারে। খাবার চিবানো, হজম করা এবং সঞ্চয় করার প্রক্রিয়ায় আপনার শরীরের ক্যালরি বার্ন করার প্রয়োজন হয়। এটিকে খাবারের তাপীয় প্রভাব (টিইএফ) বলা হয়। এটি আপনার দৈনন্দিন ক্যালোরি ব্যয়ের প্রায় ৫-১০ শতাংশ পর্যন্ত যোগ করে।

উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার হজম করা কঠিন। ফাইবারকে আরও শক্তভাবে চিবানো দরকার এবং ভাঙার জন্য শক্তি লাগে। খাবারে মসলা যোগ করে শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়ানোর মাধ্যমে ক্যালোরি বার্ন করা যেতে পারে।

প্রোটিন এবং ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খেলে তা কয়েক ঘণ্টার জন্য পেট ভরিয়ে রাখতে পারে। ফলে অতিরিক্ত খেয়ে ফেলার প্রবণতা দূর হয়। চোখের ক্ষুধার বদলে পেটের ক্ষুধার দিকে মনোযোগ দিন। শুধু দেখে খেতে ইচ্ছা করছে বলেই যেকোনো কিছু খেয়ে নেবেন না।

ব্যায়াম করুন

নিঃসন্দেহে মেটাবলিজম বা বিপাক বৃদ্ধির সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো ব্যায়াম। প্রতিদিন ব্যায়াম করলে তা আপনাকে শক্তিশালী ও কর্মক্ষম রাখতে সাহায্য করে।

নিয়মিত শরীরচর্চা পেশী তৈরিতে সাহায্য করে যা মেটাবলিজমে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। শরীরচর্চার অনেকগুলো সুফলের মধ্যে কয়েকটি হলো- এটি শক্তি তৈরি, ক্যালোরি পোড়ানো এবং আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সাহায্য করে।

খাবারে প্রোটিন রাখুন

মেটাবলিজম বৃদ্ধির জন্য সঠিক খাবার খান। খাবারের পুষ্টি উপাদানগুলো হজম, শোষণ এবং প্রক্রিয়া করার জন্য প্রয়োজন অতিরিক্ত ক্যালোরি। প্রোটিনযুক্ত খাবার বিপাকীয় হার ১৫-৩০ শতাংশ বৃদ্ধি করে।

প্রোটিন দীর্ঘ সময় ধরে পেট ভরিয়ে রাখে এবং অতিরিক্ত খাওয়া থেকে বিরত রাখে। এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, খাবারে প্রোটিন যুক্ত থাকলে মানুষ প্রতিদিন এক শতাংশ ক্যালোরি কম গ্রহণ করে।

জেএইচ/চখ

Loading...