chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

এখনো খোঁজ নেই নালায় তলিয়ে যাওয়া সেই পথচারীর

পঞ্চম দিনেও চলছে অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাঁচদিন হতে চললেও নগরীর মুরাদপুর এলাকায় পা পিছলে নালায় তলিয়ে যাওয়া পথচারী ছালেহ আহমেদের খোঁজ এখনও মেলেনি।

আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আগ্রাবাদ ফায়ার স্টেশনের ওয়ারহাউজ ইন্সপেক্টর মোল্লা সিকান্দার আলী চট্টলার খবরকে বলেন, পঞ্চম দিনের মতো উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে। কিন্তু নিখোঁজ ছালেহ আহমদের কোনো সন্ধান মেলেনি।

তিনি বলেন, আজ রোববার সকাল সাড়ে ৭ টা থেকে মুরাদপুরের যেখানে তলিয়ে গিয়েছিল সেখান থেকে শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ডুবুরি দল। যা কর্ণফুলী নদীর মুখ পর্যন্ত তল্লাশি করা হবে। দুইদলে ১৪-১৫ জন ডুবুরি কাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, পানিতে কারও মৃত্যু হলে সাধারণত মরদেহ ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ভেসে উঠে। চারদিন পরও যেহেতু ছালেহ আহমদের খোঁজ পাচ্ছি না, তাই মনে হচ্ছে মরদেহটি ময়লায় আটকে থাকতে পারে। কারণ নালার অনেক জায়গায় ময়লা আটকে আছে। এছাড়া ঘটনার দিন নালায় অনেক স্রোত ছিল। সে কারণে মরদেহ কর্ণফুলী নদীতে গিয়েও পড়তে পারে। এরপরও ফায়ার সার্ভিস সম্ভাব্য স্থানসমূহে অভিযান চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, বুধবার (২৫ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পাঁচলাইশ থানার মুরাদপুর এলাকায় আয়োজন রেস্টুরেন্টের সামনে পা পিছলে নালায় পড়ে যান তিনি। দুর্ঘটনাস্থল ওই নালায় কোনো স্ল্যাব ছিল না।

পরে এ ঘটনার যে ভিডিও চিত্র পাওয়া গেছে তাতে দেখা গেছে, ছালেহ আহমেদ নামের ওই ব্যক্তি একটি বাস থেকে নেমে নালার পাড় ধরে হেঁটে আসছিলেন। হঠাৎ কোনো কারণে তিনি ভারসাম্য হারিয়ে পা পিছলে নালায় পড়ে যান। এ সময় এক লোক তাকে টেনে ধরতে হাত বাড়িয়েছিলেন কিন্তু ছালেহ আর উঠতে পারেননি। জানা গেছে, সালেহ আহমদ নগরীর চকবাজারের কাঁচামালের ব্যবসা করতেন। তার বাড়ি পটিয়া উপজেলার মনসা গ্রামে।

এসএএস/জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...