chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

‘বিদ্যমান বর্জ্য অপসারণে বিরূপ প্রভাব পড়ছে পরিবেশে’

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্থান সংকুলানের অভাবে বিদ্যমান বর্জ্য অপসারণ করে ডাম্পিয়ের কারণে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব ও জনস্বাস্থ্য হানিকর উপসর্গ তৈরি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

তিনি বলেন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা পরিশোধন ও রূপান্তরের মাধ্যমে নিত্য ব্যবহারে উৎপাদনে নিয়ে আসাটা আধুনিক কর্মপরিকল্পনার প্রধান শর্ত। এক্ষেত্রে বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে করপোরেশন আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থায় কাজ করছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) চসিক কার্যালয়ে জাইকা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের সংশ্লিষ্টদের সাথে বৈঠককালে মেয়র এসব কথা বলেন।

মেয়র বলেন, পরিবেশ ও নগরবাসীকে স্বাস্থ্যের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন জরুরী হয়ে পড়েছে। বর্জ্য অপসারণ প্রক্রিয়ার যাবতীয় বিষয়গুলো তদারকি ছাড়াও এ প্রকল্পের যাবতীয় বিষয়গুলো মনিটরিং করবে চসিক।

জাইকা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের উপ দলনেতা প্রকৌশলী গোলাম সরওয়ার বলেন, প্রকল্পটি চসিকের ভবিষ্যৎ বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সহায়ক ও সাশ্রয়ী হেবে। পরিকল্পনাটি ২০২১-২০২৫ পর্যন্ত মধ্য মেয়াদী এবং ২০২১-২০৩০ পর্যন্ত দীর্ঘ মেয়াদী সময়সীমা নির্দিষ্ট করে গ্রহণ করা হয়েছে।

বৈঠকে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলম, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল বারেক , সংরক্ষিত কাউন্সিলর আঞ্জুমান আরা, সচিব খালেদ মাহমুদ্, প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদীপ বসাক, ঝুলন কুমার দাশ, উপ-প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির চৌধুরী, উপ-প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম চৌধুরী, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সিদ্দিক, ফরহাদুল আলম, আশিকুল ইসলাম, মির্জা ফজলুল কাদের, জইকার প্রকৌশলী মাহমুদ ইবনে সাদিক, আবরার এম রিফাত, জাইকার দলনেতা জাপান থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হন মি. সামাহিরো সাইতো, প্রকৌশলী রোকনুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরকে/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...