chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

সবজির দামে আগুন, মাছ-মাংসে স্বস্তি

ণিনিজস্ব প্রতিবেদক: : চট্টগ্রামের কাঁচা বাজারে দফায় দফায় বাড়ছে প্রায় সবজির দাম। তবে সামুদ্রিক মাছ বাজারে আসায় কিছুটা কমেছে মাছের দাম। এছাড়া ব্রয়লার মুরগির দামও ক্রেতাদের নাগালে রয়েছে।

শুক্রবার সকাল নগরীর বাজারগুলোতে বেশিরভাগ সবজির দাম মানভেদে কেজিপ্রতি গেল সপ্তাহের তুলনায় ১০-২০ টাকা বেশিতে বিক্রি হচ্ছে। তবে অজুহাত হিসেবে ক্রেতারা বলছেন বর্ষার কয়েক দফা বৃষ্টিতে সবজি খেত নষ্ট হয়ে গেছে। এতে সবজিও নষ্ট হয়ে গেছে। তাই যা কিছু সবজি বাজারে আসছে তার চাহিদা বেশি থাকাতে দাম কিছুটা বেড়েছে। তবে ক্রেতারা বলছেন, নানা অজুহাতে বিক্রেতারা সবজির দাম বাড়াচ্ছে। এতে সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে চলে গেছে সবজির দাম।

বর্তমানে বাজারে চাহিদা বেশি এমন সব সবজি ৫০ টাকার নিছে মিলছে না। চিচিঙা বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, ঝিঙের কেজি ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ টাকা, কাকরোল ১০০ টাকা কেজি, মিষ্টি কুমড়া বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়, কাঁচা পেঁপের কেজি ৪০ টাকা, কাঁচা মরিচ কেজি ১০০ থেকে ১৪০ টাকা, টমেটো কেজি ১২০ টাকা। চৌমুহনী বাজারের ব্যবসায়ী মামুন চট্টলার খবরকে বলেন, ‘এখন সবজির দাম একটু বেশি। ক্রেতা আসে যায়, কেউ নেয় আবার কেউ নেয়না।’

দেশি মুরগী প্রতিকেজি ৩৮০-৪২০ টাকা, সোনালি জাতের মুরগী ১৮০-২০০ টাকা, লেয়ার মুরগীর দাম হচ্ছে ২০০-২২০ টাকা, ব্রয়লার মুরগী ১১০-১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মুরগীর ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১১০ টাকায়। তবে গরুর ও ছাগলের মাংস আগের দামে বিক্রি হচ্ছে। প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকায়। এছাড়া ছাগলের মাংস বিক্রি হচ্ছে ৮০০ টাকায়।

অন্যদিকে সামুদ্রিক মাছ বাজারে আসায় দাম কমতে শুরু করেছে অন্যান্য মাছের। নাইলোনটিকা প্রতিকেজি ১৩০-১৫০ টাকায়, লইট্টা ৮০-১২০ টাকা, চিংড়ি মানভেদে ৩০০-৬০০ টাকা, পাবদা মাছ ৪৫০ টাকা, কোরাল মাছ ৪৫০ টাকা, রূপচানা প্রতিকেজি ৪৫০ থেকে মানভেদে ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ইলিশ মানভেদে ৪০০ থেকে ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাপ জাতীয় মাছ (রুই, মৃগেল, কাতলা) মানভেধে বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২৫০ টাকায়।

এসএএস/ইনি/নচ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...