chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

২৪ ঘণ্টায় খোঁজ মেলেনি তলিয়ে যাওয়া সেই পথচারীর

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিখোঁজের ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনো খোঁজ মেলেনি নগরীর মুরাদপুরের নালায় পড়ে যাওয়া ছালেহ আহমেদের (৫০)।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টায় আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শফিকুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ৬ টা ৪০ মিনিট থেকে আবারো উদ্ধার কাজ শুরু করা হয়। চারজন ডুবুরি কাজ করছে। এখনো খোঁজ মেলেনি তলিয়ে যাওয়া ব্যক্তির।

তিনি বলেন, যদি নিখোঁজ ব্যক্তিটির মৃত্যুও হয়, সাধারণত ১৮ ঘণ্টা পর মরদেহ ভেসে ওঠার কথা। কিন্তু কোনো খোঁজ নেই। সবকিছু মাথা রেখে আমার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।

এর আগে বুধবার সারাদিন উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনার পর সন্ধ্যা ৭ টায় উদ্ধার অভিযান স্থগিত রাখা হয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, নালা খুব একটা গভীর নয়। বুধবার সকালে ওই ব্যবসায়ী যখন পড়ে যান, তখন পানি ভর্তি নালাটির গভীরতা ১০ ফুটের মতো ছিল। কিন্তু এখন পানি কমে গেছে, এখন গভীরতা চার ফুটের মতো আছে।

সবজি ব্যবসায়ী ছালেহ আহমেদের নালায় পড়ে যাওয়ার সিসিটিভি ফুটেজ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে নগরীর মধ্যে এত বড় নালা উন্মুক্ত থাকা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

নালাটি চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতাভুক্ত। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের পরিচালক লেফট্যানেন্ট কর্নেল শাহ আলী বলেন, এখন বৃষ্টির কারণে আমাদের কাজ বন্ধ আছে। কাজ চলাকালীন সময়ে নালা বা খালের পাশে সতর্কবার্তা থাকে। তিনি আরও বলেন, আমরা কাজ শুরু করার আগেও কিন্তু এই খালটি উন্মুক্ত ছিল। তাছাড়া ওই এলাকার লোকজন তো জানে, রাস্তার পাশে নালা আছে। বিপদ তো কাউকে বলে আসে না। আর রাস্তার পাশে ফুটপাত আছে, সেটা পেরিয়ে নালা। ফুটপাত মূল সড়ক থেকে বেশ কিছুটা উঁচুতে। তবে আমাদের কাজ শেষ হলে আমরা ফুটপাত আরও উঁচু করে দেব যেন গাড়ি উঠতে না পারে। একই সাথে নালা বা খালের দুই পাশে ছোট করে রঙিন রেলিং দিয়ে দেব যেন মানুষ বুঝতে পারে এটা নালা বা খাল।

এর আগে বুধবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর মুরাদপুর এলাকায় নালায় পড়ে নিখোঁজ হন ব্যবসায়ী ছালেহ আহমেদ। তাকে উদ্ধারে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুই দফায় উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিস।

ছালেহ আহমেদের বাড়ি পটিয়া উপজেলার মনসা চৌমুহনী এলাকায়। তিনি নগরীর চকবাজারে ভাড়া বাসায় থাকতেন। এলাকাবাসী জানান, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সালেহ আহমেদ চকবাজার থেকে ফটিকছড়ির মাইজভান্ডারি দরবার শরীফে যাচ্ছিলেন। পথে ওই জলাবদ্ধ নালার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় পড়ে নিখোঁজ হন তিনি।

এসএএস/ এনএনআর/ চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...