chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

 ই-অরেঞ্জের মালিকসহ ৩জন ৫ দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশিয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন ও তার স্বামী মাসুকুর রহমানসহ তিন জনের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

প্রতারণা করে গ্রাহকের ১১শ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় সোমবার শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া রিমান্ডের এ আদেশ দেন। রিমান্ডে যাওয়া অন্য আসামি হলেন প্রতিষ্ঠানটির চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) আমানউল্লাহ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম তিন আসামির ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত আসামিদের উপস্থিতিতে রিমান্ড শুনানির জন্য সোমবার দিন ধার্য করেছিলেন। সোমবার রিমান্ড শুনানিতে আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়। তাদের পক্ষে আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল ও জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধীতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে রিমান্ডের আদেশ দেন। গুলশান থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা এসআই মো. আলমগীর এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) সকালে রাজধানীর গুলশান থানায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহক তাহেরুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি প্রতারণা মামলা করেছেন। এসময় প্রতারণার শিকার আরও ৩৭ জন উপস্থিত থেকে তার সঙ্গে সাক্ষ্য দেন। মামলায় আসামি করা হয় মাসুকুর রহমান, আমানউল্ল্যাহ, বিথী আক্তার, কাউসার আহমেদ, সোনিয়া মেহজাবিনসহ ই-অরেঞ্জের মালিকরা। এজাহারে সবাইকে ই-অরেঞ্জের মালিক বলে দাবি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) গ্রাহকের পণ্য অথবা পরিশোধ করা অগ্রিম অর্থ ফেরত না দেওয়ায় ই-অরেঞ্জের বিরুদ্ধে দায়ের করা অর্থ আত্মসাত মামলায় সোনিয়া মেহজাবিন ও মাসুকুর রহমানকে কারাগারে পাঠান আদালত। ১৮ আগস্ট সন্ধ্যায় আমান উল্যাহকে গুলশান এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে ২৪টি ক্রেডিট কার্ড, ১৬ লাখ টাকা এবং গাড়ি জব্দ করা হয়।

আরএস/এনএনআর

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...