chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

পদ্মা সেতুতে বসল শেষ স্ল্যাব, দৃশ্যমান হল পুরো সড়কপথ

ডেস্ক নিউজ: স্বপ্ন থেকে বাস্তবে রূপ নিতে যাচ্ছে পদ্মা সেতু। আরও একটি স্প্যানে রোডওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। ফলে আরও একধাপ এগিয়ে গেল স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ।

সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বাসানোর দুই মাসের মাথায় শেষ হলো সড়কপথের স্ল্যাব বসানোর কাজ। সড়কপথে মোট ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়।

আজ সোমবার (২৩ আগস্ট) সকালের মধ্যে ১০টা ১২মিনিটের দিকে সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারে সর্বশেষ রোডওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ শেষ হয়। এতে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতুতে পূর্ণাঙ্গ রূপ পেল সড়কপথ।

এখন বাকি থাকল শুধু পিচঢালাইয়ের কাজ। এটি শেষ হলেই স্বপ্নের পদ্মা সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু হবে। গণমাধ্যমকে এমন তথ্য দিয়েছেন পদ্মা সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘আজ সকাল ১০টা ১২ মিনিটে পদ্মা সেতুতে সড়কপথের শেষ স্ল্যাবটি বসানো হয়েছে। এই ঐতিহাসিক মুহূর্তটি সবাই মিলে উদযাপন করা হয়েছে। আতসবাজীর মধ্য দিয়ে শেষ স্ল্যাবটি বসানো হয়েছে। এখন শুধু পিচঢালাইয়ের কাজ বাকি থাকল।’

দ্বিতল সেতুর নিচের অংশে রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। এছাড়া ১৩ জুলাই সেতুতে পরীক্ষামূলকভাবে পিচ ঢালাইয়ের কাজ করা হয়।

সেতুর জাজিরা প্রান্তের ৪১ নম্বর স্প্যান থেকে ৩৭ নম্বর স্প্যান পর্যন্ত রোডওয়ে স্ল্যাব, প্যারাপেট ওয়াল এবং রোড ডিভাইডার বসানো হয়েছে। এই সড়কটুকুতে বাতি ছাড়া প্রায় সব কাজই শেষ।

নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত সেতু প্রকল্পের সার্বিক কাজ এগিয়েছে ৮৭ দশমিক ২৫ শতাংশ। আর মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ২৫ শতাংশ। অর্থাৎ মূল সেতুর কাজের আর বাকি মাত্র পাঁচ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু।

এরপর একে একে ৪২টি পিলারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু পুরোপুরি দৃশ্যমান হয়েছিল ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর।

একই সঙ্গে চলতে থাকে রোডওয়ে ও রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোসহ বাকি কাজ। ২০২২ সালের জুন মাসের মধ্যেই এই সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার কথা রয়েছে।

 

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...