chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

হাটহাজারী মাদ্রাসার মাঠে সন্ধ্যায় বাবুনগরীর জানাজা

নিজস্ব প্রতিবেদক: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির হাফেজ মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরীর মরদেহ নগরীর সিএসসিআর হাসপাতাল থেকে হাটহাজারী মাদ্রাসায় নেওয়া হয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসা মাঠে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।
বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) দুপুর দেড়টার দিকে তার মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্স চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। হেফাজত ইসলামের চট্টগ্রাম মহানগরের প্রচার সম্পাদক আহমদ উল্লাহ বলেন, বাবুনগরীর মরদেহ এখন হাটহাজারী মাদ্রাসায় রাখা হয়েছে।
হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মীর মোহাম্মদ ইদ্রিস বলেন, হাটহাজারী মাদ্রাসা মাঠে হুজুরের প্রথম জানাজা নামাজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে নামাজের সময় পেছানো হতে পারে। তিনি বলেন, জুনায়েদ বাবুনগরীকে কোথায় দাফন করা হবে সেই বিষয়ে আলোচনা চলছে।
এদিকে, হেফাজতের আমিরের মৃত্যুর সংবাদের পরপরই নেতাকর্মী ও ভক্তরা হাসপাতালে এসে ভীড় করেন। মাইনউদ্দিন নামে বাবুনগরীর এক ছাত্র বলেন, হুজুরকে শেষ বারের মতো দেখতে এসেছিলাম। তিনি অনেক কাজ করে গেছেন।
সিএসসিআর হাসপাতালের চিকিৎসক মোহাম্মদ আমজাদ বলেন, জুনায়েদ বাবুনগরী হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছেন। ওনার কিডনি সমস্যা, উচ্চ রক্তচাপসহ নানাবিধ সমস্যা ছিল।
 এর আগে বেলা ১১টার দিকে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে ফায়ার সার্ভিসের অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে চট্টগ্রামে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়। বাবুনগরীর খাদেম মাওলানা জুনায়েদ গণমাধ্যমকে জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে বাবুনগরীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়। পরে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে তাকে নিয়ে হাসপাতালের দিকে রওনা হন সঙ্গীরা।
৬৭ বছর বয়সী আল্লামা বাবুনগরী দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগ, কিডনি ও ডায়াবেটিসসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। গত ১০ আগস্ট দুপুরে নগরীর একটি হাসপাতালে জুনায়েদ বাবুনগরীর চোখের একটি অপারেশনও করা হয়। গত ৭ জুন মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরীকে আমির ও মাওলানা নুরুল ইসলামকে মহাসচিব করে ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল।
এসএএস/ এনএনআর/চখ
এই বিভাগের আরও খবর
Loading...