chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

আমদানিকারকদের দ্রত কনটেইনার খালাসের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক: দ্রুতসময়ে আমদানিকারকরা কনটেইনার খালাস নিলে বন্দরে জট হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে মনে করেন চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম শাহজাহান। তিনি বলেন, আমদানি করা কনটেইনার বন্দরে আসার পর দ্রুত সময়ে খালাস করে নিয়ে যেতে হবে। কম সময়ে কনটেইনার খালাস হলে বন্দরের কাজের গতি বাড়বে।

মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়ে বন্দরের চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন তিনি। বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসানের নেতৃত্বে সংগঠনটির ২২ সদস্যের প্রতিনিধিদল সভায় উপস্থিত ছিলেন।

বন্দর চেয়ারম্যান বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরের কাজ হলো ২৪ ঘণ্টা সেবা দেওয়া। করোনার সময়ও সার্বক্ষণিক এটির চেষ্টা করে আসছি। আমরা স্টেকহোল্ডারদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে চাই। কনটেইনারের বৈশ্বিক সংকটে রপ্তানি বাণিজ্য বাধাগ্রস্থ না হতে সবার সাথে আলোচনা করে সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে। এর ফলে সুফল মিলেছে। এখন রপ্তানি বাণিজ্য স্বাভাবিক গতি ফিরেছে।

বক্তেব্যর শেষে বন্দরের চেয়ারম্যান বিজিএমইএ নেতাদের সমুদ্রপথে ক্রেতা দেশসমূহে সরাসরি জাহাজ চালুর বিষয়ে এমএল চালুর আলোচনা, বায়ারদের পণ্য পরিবহনে নির্দিষ্ট শিপিং লাইন নির্ধারণ না করা ছাড়াও ২৪ ঘণ্টা কাট অফ টাইমের মধ্যে পণ্য বন্দরে পৌঁছানোর অনুরোধ জানান।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে রপ্তানির সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন। এছাড়াও রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য সরকারের পাশাপাশি বন্দরের সহযোগিতার কথা তুলে ধরেন।

মতবিনিময় সভায় রাখেন বিজিএমইএর প্রথম সহসভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সাবেক প্রথম সহসভাপতি নাছির উদ্দিন চৌধুরী, মঈনউদ্দিন আহমেদ মিন্টু, সাবেক পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ।

আরকে/ এনএনআর

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...