chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

অনুমোদন ছাড়া অতিরিক্ত পণ্য আইসিডিতে প্রেরণ না করার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক : অনুমোদিত ৩৭টি পণ্যের অতিরিক্ত আমদানি করা পণ্য আইসিডিতে প্রেরণ না করার আহ্বান জানিয়েছেন দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম।

একইসঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে সরাসরি খালাসের নির্দেশনা চেয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের (এনবিআর) কাছে চিঠি দিয়েছেন তিনি।

সোমবার (১৬ আগস্ট) এনবিআর চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো চিঠিতে নির্দেশনা চেয়ে বিশেষ অনুরাধ করেন চেম্বার সভাপতি।

চিঠিতে বলা হয়, গত ২৫ জুলাই থেকে প্রাইভেট আইসিডিসমূহ থেকে ৩৭টি অনুমোদিত পণ্যের অতিরিক্ত সব ধরনের পণ্য খালাসের অনুমতি প্রদান করা হয়। ফলে বর্তমানে প্রত্যেকটি আইসিডিতে ধারণক্ষমতার কাছাকাছি কন্টেইনার অবস্থান করছে।

কিন্তু এসব প্রাইভেট আইসিডিতে পর্যাপ্ত স্থান, ইকুইপমেন্ট ও শ্রমিক স্বল্পতার কারণে মালামাল খালাসে দীর্ঘসূত্রিতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। উদাহরণস্বরূপ বলা যেতে পারে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে যেখানে মাত্র দুই দিনে পণ্য খালাস করা যায়, সেখানে আইসিডিতে পণ্য খালাসে ক্ষেত্র বিশেষে ৭ থেকে ৮ দিন পর্যন্ত সময় লাগছে। তাছাড়া চট্টগ্রাম বন্দরের তুলনায় প্রাইভেট আইসিডির চার্জসমূহ তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি।

ফলে প্রাইভেট আইসিডি থেকে মালামাল খালাসের ক্ষেত্রে আমদানিকারকদের ব্যয় অনেকগুণ বৃদ্ধি পায়। কাজেই বাড়তি ব্যয় ও পণ্য খালাসে বিলম্বের কারণে সংশ্লিষ্ট শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রচুর আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়। যা বর্তমান মহামারি পরিস্থিতিতে কোনমতেই কাম্য হতে পারে না। অন্যদিকে চট্টগ্রাম বন্দর বর্তমানে অত্যন্ত দ্রুততার সাথে সেবা প্রদান করে আসছে বলে পত্রে দাবি করেন চেম্বার সভাপতি।

দেশীয় শিল্প ও আমদানিকারকদের কথা বিবেচনা করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

আরকে/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...