chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

১০০ জনকে টিকা দিলেন নারী কাউন্সিলর

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুমিল্লা সিটি কপোরেশনের (কুসিক) এক নারী কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে শতাধিক ব্যক্তিকে নিজ হাতে টিকা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত কাউন্সিলরের নাম নাদিয়া নাসরিন। তিনি কুসিকের ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর।

গত ৯ আগস্ট নগরের গাংচর এলাকার হারুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় লাগোয়া নিজ অফিসে তিনি মডার্নার ওই টিকা পুশ করেন বলে জানা গেছে।

তবে বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) টিকা দেওয়ার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এরপর বিষয়টি নিয়ে নগরীতে সমালোচনার ঝড় উঠে। রাতে কুমিল্লার সিভিল সার্জন জানিয়েছেন বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ৯ আগস্ট দুপুর ১২টার দিকে হারুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় টিকাকেন্দ্রে সরকার দলীয় স্থানীয় কিছু নেতাকর্মী শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে নিজেদের লোকদের আগে টিকা দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। এতে সারিতে থাকা সাধারণ জনগণ ক্ষিপ্ত হন। এ নিয়ে প্রথমে হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এরপর সংঘর্ষের আশঙ্কায় কেন্দ্রটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এ সময় নাদিয়া নাসরিন বেশ কয়েকটি টিকার ভায়েল ও বেশ কিছু বিশেষ সিরিঞ্জ নিয়ে টিকাকেন্দ্রের অদূরে তার নিজের বাড়ির সামনের কার্যালয়ে চলে যান। তখন তার অনুসারীরাও ওই কার্যালয়ে যান। সেখানে তিনি নিজ হাতে টিকাপ্রত্যাশীদের টিকা দেন।

নাদিয়া নাসরিন সাংবাদিকদের বলেন, ৯ আগস্ট হারুন স্কুল টিকাকেন্দ্রে কর্মীদের সঙ্গে বহিরাগতদের হাতাহাতি হয়। এরপর টিকা দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়। পরে তিনি টিকাগুলো তার অফিসে নিয়ে আসেন। এরপর নিজেই মানুষের শরীরে টিকা পুশ করেন।

অন্তত ১০০ জনকে টিকা দেওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি আরও বলেন, অতীতে আমার টিকা দেওয়ার প্রশিক্ষণ ও সনদ আছে। তাই আমি নিজেই টিকা দিয়েছি। এতে কারও কোনও অসুবিধা হয়নি।

কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসাইন বলেন, এটা তো কাউন্সিলরের কাজ না। তিনি কোনোভাবেই টিকা পুশ করতে পারেন না। সিটি করপোরেশনের কাছ থেকে বিষয়টি জেনে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এসএএস/এনএনআর

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...