chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

গুজবে কান না দিয়ে অর্থ পিশাচদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান: সুজন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রশাসক এবং চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন চট্টগ্রামবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছেন, অর্থ পিশাচদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান, গুজবে কান দিবেন না।

সবুজ প্রকৃতির আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী জাগরণ যাত্রা ও বিশাল নাগরিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

আজ সোমবার (১৯ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৩টায় সিআরবি চত্বরে আয়োজিত নাগরিক সমাবেশে সুজন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময়ই পরিবেশের পক্ষে। সবুজ জায়গা সংরক্ষণ, নদনদী উদ্ধারসহ পরিবেশ রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে চলছেন।

‘কিন্তু কিছু কুচক্রীমহল অত্যন্ত সূক্ষ্মভাবে সরকারের সাথে জনগণের দূরত্ব সৃষ্টির অপপ্রয়াসে লিপ্ত রয়েছে। এখনই এদের রুখে না দাঁড়ালে এরা সরকারের জন্য বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই এখনই তাদের বিষদাঁত ভেঙ্গে দিতে হবে।’

তিনি বলেন  আমরা চট্টগ্রামবাসী সবসময় হাসপাতালের পক্ষে। আমাদের চট্টগ্রামে অনেক হাসপাতাল দরকার। বিশেষ করে বন্দর পতেঙ্গা এলাকায় একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল তৈরি নাগরিক উদ্যোগের দীর্ঘদিনের দাবি।

তবে প্রাইভেট হাসপাতালের নামে জনগণের নিঃশ্বাস ফেলার পরিবেশ যাতে নষ্ট না হয় সেদিকে সবার দৃষ্টি রাখা একান্ত প্রয়োজন। আমরা চাইলে সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ করতে পারি কিন্তু কোনভাবেই আর সিআরবির শতবর্ষের সেই মনোরম পরিবেশ তৈরি করতে পারবো না।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে খেলার মাঠ নেই, খালি জায়গা নেই, আমাদের নতুন প্রজন্ম ইট পাথরের বিল্ডিংয়ে কীভাবে নিঃশ্বাস ফেলবে সে চিন্তাও কিন্তু করতে হবে। সব জায়গা জমি যদি আমরা এভাবে বাণিজ্যিকিকরণ করে ফেলি তাহলে এর কুফল সবাইকে ভোগ করতে হবে।

অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে যারা বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অমান্য করে বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন তারাই আজ গুজবের সৃষ্টি করছে। একেক সময় একেক কথা বলে তারা জনগণকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। এদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি।

ইউনাইটেড গ্রুপের মালিকের প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আমি নিজেও ইউনাইটেড হাসপাতালের রোগী। তারপরও মানবিকবোধ বিবেকবোধ থেকে আমি এখানে এসে উপস্থিত হয়েছি। চট্টগ্রামের মানুষ আজ এই বিষয়টি নিয়ে দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ। আপনি চট্টগ্রামে হাসপাতাল তৈরি করুন, চট্টগ্রামবাসীর কোন আপত্তি থাকবে না।

আমরা অবশ্যই আপনার উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। তবে নগরবাসীর ফুসফুস নেওয়ার স্থানকে ছিদ্র করলে সেটা কোন ডাক্তারের পক্ষে চিকিৎসা করে ভালো করা সম্ভব হবে না। আপনি সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের প্রকল্প বাদ দিন, আমরা চট্টগ্রামবাসীই আপনাকে জায়গা খুঁজে দিবো হাসপাতাল নির্মাণ করার জন্য।

দয়া করে চট্টগ্রামের জনগণের হৃদয়ের কান্নাকে পদদলিত করে এখানে হাসপাতাল নির্মাণ করতে যাবেন না। সেটা কখনোই ভালো ফল বয়ে আনবে না।

তিনি আরো বলেন, আমরা রাজনীতি করি জনগণের জন্য। দলের কাজ হচ্ছে জনগণের মনের কথাটি সরকারের কাছে উপস্থাপন করা। তাই সরকারকে চট্টগ্রামের জনগণের হৃদয়ের কথাটি জানাতে এখানে উপস্থিত হয়েছি।

আমাদের প্রধানমন্ত্রী প্রকৃতির মা। আমরা অবশ্যই আশা করি প্রধানমন্ত্রী প্রকৃতি ধ্বংস করতে দিবেন না। প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের জনগণের পক্ষেই সিদ্ধান্ত প্রদান করবেন সে বিশ্বাস চট্টগ্রামবাসীর আছে।

দুপুরের পর থেকেই নগরীর বিভিন্ন এলাকার সাধারণ নারী পুরুষ দলমত নির্বিশেষে স্বতঃস্ফূর্তভাবে জাগরণ যাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। মাথায় সবুজ পাতায় আচ্ছাদিত ব্যান্ড, জাতীয় পতাকা, সবুজ পতাকা হাতে নিয়ে উপমহাদেশের প্রখ্যাত শিল্পী বিনয় বাঁশী শিল্পী গোষ্ঠীর শিল্পীদের ঢোলের তালে এবং সানাইয়ের সুরে জাগরণ যাত্রা সিআরবি সড়কের বাউবি আঞ্চলিক কেন্দ্রের সামনে থেকে শুরু হয়ে সিআরবি সাত রাস্তার মুখে এসে শেষ হয়।

সেখানে সর্বস্তরের নগরবাসী, শিল্পী, সাহিত্যিকদের সমন্বয়ে নাগরিক সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নাগরিক উদ্যোগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাজী মো. ইলিয়াছ।

সংগঠনের সদস্য সচিব হাজী মো. হোসেন এর সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা ও গবেষক ডা. মাহফুজুর রহমান, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মসিউর রহমান চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রপের মহাসচিব গোলাম রসুল বাবুল, আব্দুর রহমান মিয়া, রুহুল আমিন তপন, সাইদুর রহমান চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মাহবুবুল হক সুমন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সাবেক সদস্য শওকত হোসাইন, ফরহান আহমেদ, মহানগর সৈনিক লীগের আহবায়ক শফিউল আজম বাহার, সাবেক ছাত্রনেতা মাঈনুল হক লিমন, কাউন্সিলর আব্দুস সালাম মাসুম, সাবেক ছাত্রনেতা এনামুল হক মিলন, সমীর মহাজন লিটন, রকিবুল আলম সাজ্জী, রাজীব হাসান রাজন, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি এম ইমরান আহমেদ ইমু প্রমুখ।

আরএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...