chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

এবারও চাহিদার শীর্ষে চট্টগ্রামের ‘লাল বিরিষ’

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামসহ সারা দেশে এবারও কোরবানির পশু হিসেবে চাহিদার শীর্ষে রয়েছে ‘রেড চিটাগাং’ বা লাল বিরিষ। বর্তমানে চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাটে লাল বিরিষ উঠেছে। এর কদর বেশি থাকায় বিক্রিও হচ্ছে বেশি দামে।

কোরবানির বাজারে চট্টগ্রামের লোকজনের কাছে এই লাল বিরিষের চাহিদা থাকে বেশি। এসব গরুর গায়ের রং লাল। আকারে ছোট। ওজন হয়ে থাকে তিন থেকে সবোর্চ্চ ১০ মণ।চট্টগ্রাম অঞ্চলে উৎপত্তি ও বিস্তার লাভ করায় এটি ‘চাঁটগাইয়া গরু’ নামেও পরিচিত। তবে এ ধরনের গরু এখন কমে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা।

পশু বিশেষজ্ঞ ও কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাংলাদেশের নিজস্ব উন্নতমানের গরু হচ্ছে রেড চিটাগাং। দুধ উৎপাদন, মাংস উৎপাদন ও চাষাবাদের জন্য বেশ উপযুক্ত। এদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই বেশি। ফলে সহজে এরা রোগাক্রান্ত হয় না। এদের খাদ্য চাহিদা মেটানোর জন্য আলাদা কোনও জোগাড়ের প্রয়োজন হয় না বিধায় লালন-পালনে খরচও খুব কম হয়।

এবারও চাহিদার শীর্ষে চট্টগ্রামের ‘লাল বিরিষ’
কোরবানি ঈদে অনেকের প্রথম পছন্দ ‘লাল বিরিষ’ । চট্টগ্রামজুড়ে এর কদর বেশি থাকায় দামও চড়া থাকে এসব গরুর। ছবিটি নগরীর দেওয়ানহাট ওভারব্রীজ এলাকা থেকে তোলা।  — এম ফয়সাল এলাহী

লাল বিরিষ চট্টগ্রামের সব অঞ্চলেই কম বেশি পাওয়া যায়। তবে তুলনামূলক বেশি দেখা যায়, রাউজান, সাতকানিয়া, সীতাকুণ্ড, আনোয়ারা, পটিয়া, চন্দনাইশ ও বাঁশখালী উপজেলায়।

বাঁশখালীর গরু খামারি শামসুল ইসলাম কোরবানির ঈদে বিক্রির জন্য ৫টি বিরিষ লালন-পালন করেছেন। তিনি বলেন, বিরিষের চাহিদা বেশি থাকায় আমি এগুলো যত্ন নিয়ে লালন-পালন করছি। দামও ভালো পায়ছি। ৩ টি বিরিষ বিক্রি করে ৫ লাখ টাকা পেয়েছি।
মোহাম্মদ আলী নামে খুলশীর বাসিন্দা বলেন, প্রতিবছর মতো এবারও লাল বিরিষ কোরবানি দেয়ার আশা করছি। এখন থেকেই বিরিষ দেখা শুরু করেছি। পছন্দ হলে নিয়ে নিবো।

সাতকানিয়ার বাসিন্দা শাহ আলম বলেন, অনেক হাট-বাজার ঘুরার পর ৮২ হাজার টাকায় একটা লাল বিরিষ কিনেছি। প্রতি বছর আমরা লাল বিরিষ দিয়ে কোরবানি দেওয়ার চেষ্টা করি।

কোতোয়ালী এলাকার বাসিন্দা হাজী নজু মিয়া বলেন, বিরিষের চাহিদা চট্টগ্রামে সব সময় বেশি থাকে। আমি প্রতিবছর আল্লাহর রহমতে বিরিষ কুরবানি দিয়ে থাকি। এবারও এগ্রো ফার্ম থেকে ২ লাখ ১০ হাজার টাকায় লাল বিরিষ নিয়েছি।

চট্টগ্রাম জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রেয়াজুল হক বলেন, চট্টগ্রাম অঞ্চলে কোরবানি ঈদে লাল বিরিষ জাতের গরুটির চাহিদা অন্য গরুর তুলনায় বেশি থাকে।

এসএএস/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...