chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ঈদের পর ফের কঠোর লকডাউন

ডেস্ক নিউজ: আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত সরকার আরোপিত কঠোর বিধিনিষেধ (লকডাউন) শিথিল থাকলেও করোনা মহামারি বিস্তার রোধকল্পে ঈদের পর আরো কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন করা হবে।

২৩ জুলাই থেকে আবারো কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে আগামীকাল মঙ্গলবার এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। আজ সোমবার এ তথ্যটি গণমাধ্যমকে জানান সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রধান তথ্য কর্মকর্তা।

এর আগে ঈদকে সামনে রেখে কঠোর বিধিনিষেধ আবারও বাড়ানো হবে কিনা বিষয়টি সামনে এসেছে। সেটি পরিস্থিতি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

জানা যায়, পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে চলমান কঠোর লকডাউন কিছুটা শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৫ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত আট দিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে এক আসন ফাঁকা রেখে চলবে সকল গণপরিবহন। এ সময় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা থাকবে দোকানপাট ও শপিংমল।

তবে বন্ধ থাকবে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস। কোরবানির ঈদের বিষয়টি বিবেচনা করে পশুর হাট ও মানুষের চলাচলেও কিছুটা শিথিলতা থাকবে। এছাড়া বাকি সব বিধিনিষেধ বলবৎ থাকবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ১ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে। যা প্রথমে ৭ জুলাই পর্যন্ত থাকলেও পরে তা আরো এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়।

রবিবার (১১ জুলাই) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলাপকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানায়, যেহেতু ঈদ এবং কোরবানির হাট আছে, এ দুটিকে কীভাবে করলে সংক্রমণটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারব, সেটিই আমাদের মূল লক্ষ্য।

হাটগুলোকে কত সুনিয়ন্ত্রিতভাবে করতে পারি সেটা নিয়ে চিন্তা করা হচ্ছে। বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের দিকেই সরকার বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। সংক্রমণ এবার এমনভাবে ছড়িয়েছে, সেটা খুবই আশঙ্কাজনক।

১৪ জুলাইয়ের পরের সময়ও আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যদি আমরা এ সংক্রমণ কমাতে চাই, তাহলে এ প্রক্রিয়া কিন্তু অব্যাহত রাখতে হবে, বিভিন্ন পর্যায়ে।

এমআই/আরএস

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...