chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ভূমি দখল নিয়ে বিরোধে প্রবাসী ও পৌরসভা

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় একটি জমির বরাদ্দ নিয়ে স্থানীয় এক প্রবাসী ও পৌরসভার মধ্যে বিরোধ দেখা দিয়েছে। প্রস্তাবিত হাসপাতালের জায়গায় পৌরসভা খাল নির্মাণ করছেন বলে অভিযোগ করেছেন ওই প্রবাসী। তবে অনুমোদন না থাকা অংশ ভেঙ্গে পানি নিষ্কাশনের জন্য নালা করা হবে জানালেন মেয়র।

খোঁজ জানা যায়, পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডের ছিপগাছা এলাকায় তিন একর ভূমিতে হাসপাতাল করতে চেয়েছিলেন প্রবাসী ফখরুল ইসলাম খান সিআইপি। হাসপাতাল নির্মাণের জমিত রক্ষণাবেক্ষণের জন্য সাইড ওয়াল নির্মাণ করেন।

গত বুধবার (৩০ জুন) ওই জমি ঘিরে তৈরি করা ভবনের কিছু অংশ ভেঙ্গে দেয় পৌরসভা।

ভেঙ্গে দেওয়া অংশে পানি নিষ্কাশনের জন্য করার উদ্যোগ নেয় প্রশাসন। এরপর থেকে ও প্রবাসী ও মেয়রের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। বিষয়টি সমাধানের জন্য আদালতে যান প্রবাসী ফখরুল ইসলাম খান সিআইপি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফখরুল ইসলাম খান সিআইপি চট্টলার খবরকে বলেন, গত কয়েকদিন আগে নোটিশ দিয়ে আমাদের জানানো হলে সেখান দিয়ে নালা করবেন।

আমরা যেনো সাইড ওয়াল ভেঙ্গে ফেলি। কিন্তু কিভাবে, কোন ভিত্তিতে নালা করবেন সে বিষয়ে কিছুই উল্লেখ ছিল না। এখানে কোনো দিন নালা কিংবা খাল ছিল না। সেখান থেকে একশো হাত দূরে নালা আছে। উনি ওইখানে না করে আমার জায়গার ভেতর দিয়ে নালা করতে চাইছেন। উনি লোকজন নিয়ে এসে ভবনের সাইড ওয়ালা ভেঙ্গে দিয়েছেন। উকিল নোটিশের কোনো জবাব দেননি।

ফখরুল আরো বলেন, এলাকায় চিকিৎসার সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির জন্য হাসপাতাল করার ইচ্ছে ছিল। বিশেষ করে করোনা মহামারীর কারণে এলাকার মানুষকে ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে। মহিলাদের সুরক্ষার বিষটিকে প্রাধান্য দিয়ে বিশেষায়িত হাসপাতালের করা হবে।

তবে অভিযোগের বিষয়ে মিরসরাই পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম চট্টলার খবরকে বলেন, অনুমোদন না থাকার পরও তারা মাটি কেটে ওইখানে সাইড ওয়াল নির্মাণ করেছেন। মাটি ভরাট করেছে। এলাকায় প্রায় এক হাজারের বেশি মানুষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নিয়ম মেনে অনুমোদনহীন অংশ ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের জন্য ওই অংশে নালা করা হবে বলে জানান তিনি।

আরকে/এএমএস/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...