chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

আজ বিশ্ব টেলিযোগাযোগ দিবস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : টেলিযোগাযোগ এ যুগে বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত। এ পদ্ধতিতে ব্যবহৃত যন্ত্র যেমন টেলিফোন, রেডিও, টেলিভিশন এবং ওয়াকিটকি এখন সর্বত্র।

বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস আজ। ১৯৬৯ সাল থেকে প্রতি বছর দিবসটি পালিত হচ্ছে। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘এক্সিলারেটিং ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ইন চ্যালেঞ্জিং টাইমস’।

জাতিসংঘের অঙ্গ সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) এর ১৯৩টি সদস্য রাষ্ট্রের মত বাংলাদেশেও সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং বিটিআরসি প্রতি বছর নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করে আসছে। তবে এ বছর করোনার বৈশ্বিক মহামারির কারণে ডাক ও টেলিযোগাযোগ খাত তেমন কোন কর্মসূচি রাখেনি। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সরাসরি কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়নি। তবে বিটিআরসির পক্ষ থেকে ফেসবুক পেজে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরা হয়েছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার দিবসটিতে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, আসুন আমরা জনসেবার সকল খাতকে ‘ডিজিটাল রূপান্তর’ করি।

দিবসটি উপলক্ষে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এক বার্তায় উল্লেখ করেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি জীবন, কাজ, স্বাস্থ্য ও কোটি মানুষের শিক্ষা বজায় রাখে। কোভিড-১৯ এর মুখে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সরকার ও ডিজিটাল কমিউনিটি স্থিতিস্থাপক ও উদ্ভাবনী, জীবন ও জীবিকা রক্ষায় সহায়তা করেছে। এই চ্যালেঞ্জিং সময়গুলো সবজায়গার পরিবর্তনকে ত্বরান্বিত করেছে।

তিনি বলেন, ৩ দশমিক ৭ বিলিয়ন মানুষ যা প্রায় বিশ্বের প্রায় অর্ধেক জনসংখ্যা ইন্টারনেটের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে। আর এদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী। ডিজিটাল প্রযুক্তির বিপদ যেমন- ঘৃণা ও ভুল তথ্য, সাইবার হামলা এবং শোষণ থেকে আমাদের রক্ষা করতে হবে।

বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সমাজ দিবসে, আসুন আমরা কোভিড-১৯ কে পরাজিত করার জন্য একসঙ্গে কাজ করি।

চখ/এএমএস

Loading...