chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের অনুরোধ কাউন্সিলর প্রার্থীর

নিজস্ব প্রতিবেদক: ৩৩নং ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ডে একজন ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের জন্য রিটানিং অফিসারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হাসান মুরাদ বিপ্লব।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ অনুরোধ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আসন্ন ২৭শে জানুয়ারি ২০২১ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমি হাসান মুরাদ বিপ্লব ৩৩নং ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ডের “মিস্টি কুমড়া” প্রতীক নিয়ে একজন কাউন্সিলর পদপ্রার্থী। আপনাদের সমর্থন ও সহযোগিতায় আমি আজ আপনাদের কাছে সুপরিচিত।’

‘এলাকার মানুষের ভালবাসা, আন্তরিকতা ও দোয়ায় আমি বৈশ্বিক করোনা মহামারিতে মানুষের সেবা করতে গিয়ে পরিবারের সদস্যসহ সকলে আক্রান্ত হয়েছিলাম। আল্লাহর অশেষ রহমতে ও আপনাদের সকলের দোয়ায় সুস্থ হয়ে আবার আপনাদের মাঝে ফিরে এসেছি। আপনারা জাতির বিবেক আপনাদের সকল এলাকার তথ্য উপাত্ত আছে। আপনাদের মাধ্যমে আজকে ফিরিঙ্গী বাজার তথা চট্টগ্রামের সকলের কাছে আমার যে আরজি তা জানাচ্ছি।’

হাসান মুরাদ বলেন, ‘দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। গত ৫ বছর আগে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে ফিরিঙ্গী বাজারের প্রত্যেকের ঘরে ঘরে আমার পদচারণা, আমার জনগণের মৌলিক অধিকার এবং উন্নয়নের যে অগ্রযাত্রা সাধিত হয়েছে তা মনে হয় স্বাধীনতার পর আর কোন কাউন্সিলরের আমলে হয় নাই।’

‘বিগত সময়ে ফিরিঙ্গী বাজারে যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তা আর কেউ করতে পারে নাই। আমি দ্ব্যার্থহীন ভাষায় বলতে পারি ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ডে যাদের সাথে দলীয় নেতাকর্মী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মীদের কোন বিন্দুমাত্র সংশ্লিষ্টতা বা ঘনিষ্টতা নেই তারাই আজ এসি রুমে বসে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে আমার জনপ্রিয়তাকে তুচ্ছ করার জন্য আমার বিরুদ্ধে একটি গোষ্ঠীকে লেলিয়ে দিয়েছে এবং উঠেপড়ে লেগেছে। ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ডে অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে নির্বাচনের আগে এবং পরে সামান্য পরিমাণ কোন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির উদ্ভব হোক তা আমি চাই না।’

তিনি বলেন, ‘জনগণের প্রতি আমার আস্থা ও বিশ্বাস আছে। জনগণ যাতে নির্ভয়ে নিঃসংকোচে ভোট দিতে পারে সেজন্য আমি সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এই ভোট নিয়ে নোংরা রাজনীতি আমি বিশ্বাস করি না। একজন কাউন্সিলর প্রার্থীর বাসায় গত রাতের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।

‘সিসি টিভির ফুটেজ সংগ্রহ করে প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক আইনানুগ ব্যবস্থা ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করার জন্য প্রশাসনের প্রতি আকুল আবেদন জানাচ্ছি। যাতে কোন নিরীহ মানুষকে এ ঘটনায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হয়রানি না করে সে বিষয়ে প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

হাসান মুরাদ বলেন, ‘২৭ জানুয়ারি তারা ফিরিঙ্গীবাজার জে.এম.সেন স্কুল এন্ড কলেজ এবং আলকরণ সুলতান আহমেদ দেওয়ান সিটি কর্পোরেশন বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটকেন্দ্র দখলের পায়তারা করছে। আমি নির্বাচন কমিশনার, পুলিশ কমিশনার ও প্রশাসনের সকলস্তরের কর্মকর্তাদের জানাতে চায় ভোটকেন্দ্রগুলোতে আপনাদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সুষ্ঠু পরিবেশের ব্যবস্থা করতে হবে। গোপন কক্ষে কোন কাউন্সিলর প্রার্থীর লোকবল যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয় দৃষ্টি রাখার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি।’

‘আমি জানি মাননীয় পুলিশ কমিশনার মহোদয় একজন সৎ এবং ধার্মিক লোক হিসাবে পরিচিত। আমি আল্লাহকে সাক্ষী রেখে পুলিশ কমিশনার মহোদয় এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কাছে সাহায্য ও সহযোগিতা কামনা করছি এবং আপনাদের মাধ্যমে রিটানিং অফিসারের কাছে আকুল আবেদন জানাচ্ছি ৩৩নং ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ডে যেন একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে দিয়ে সার্বক্ষণিক নির্বাচন কার্যক্রম মনিটরিং করার দায়িত্ব দেওয়া হয়।’

তিনি বলেন, ‘আমাকে নিয়ে যে অপরাজনীতির খেলা চলছে সেটা থেকে আমি ও আমার নেতাকর্মী এবং সাধারণ জনগণ যাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ফিরিঙ্গী বাজারে বসবাস করিতে পারি সে ব্যাপারে আপনাদের মাধ্যমে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সেকান্দর হোসেন, সদস্য মনজুর ইসলাম,আওয়ামী লীগ নেতা কেনু মিয়া, আমির আহমেদ, মোঃ সেলিম, আব্দুর রহমান, মহানগর যুবলীগের সদস্য খোরশেদ আলম রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা তাজউদ্দীন রিজভী, সাইফুদ্দিন আহমেদ, যুবনেতা জাহাঙ্গীর আলম, হুমায়ন মোর্শেদ সিদ্দিকী শাকিল, মহানগর সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা এনামুল হক, আব্দুল মতিন, নারী নেত্রী মনোয়ারা বেগম, সেনোয়ারা, সারফিন কবির, ওয়াহিদা সুলতানা, সাইমা সিদ্দিকী, শিল্পী দে, জয়া দাশ, মহানগর ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অসিউর রহমান, সদস্য সাফফাত বিন আমিন, অনিন্দ্য দেব প্রমুখ।

এমআই/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...