chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

গার্মেন্টেসের স্টাফ বাসে যাত্রী বেশে ডাকাতি, ৫ ডাকাত গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাভারে গার্মেন্টেসের স্টাফ বাসে যাত্রী বেশে ডাকাতির ঘটনায় ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা জেলা।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ২টার দিকে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থানার দুর্গম চর বাচা মরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মোঃ আলমগীর হোসেন (২৮),মোঃ সুমন মিয়া (২৫), মোঃ মুহিত শেখ (২২), মোঃ রাজীব হোসেন (২১) ও মোঃ শরীফ মোল্লা (২০)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মাইদুল ইসলাম নামের এক ভুক্তভোগী গার্মেন্টস কর্মী তার গ্রামের বাড়ী লালমনিরহাটে যাওয়ার জন্য সাভারের হেমায়েতপুর থেকে ‘অফিস স্টাফ’ লেখা একটি বাসে উঠেন। যাত্রার কিছু দূর পর বাসের চালক হেল্পারসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন যাত্রী বেশে থাকা ডাকাত তাকে এলোপাতারি মারধর করে। তার সাথে থাকা মোবাইল, নগদ টাকা, বিকাশে থাকা টাকাসহ ২৬ হাজার টাকার জিনিসপত্র কেড়ে নেয়। পরে তাকে হাত পা-বেঁধে তুরাগ নদী সংলগ্ন একটি ফিলিং স্টেশনের পাশে ফেলে যায়। পরবর্তীতে ভিক্টিম মাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে সাভার থানায় একটি ডাকাতি মামলা করে। মামলা নং-৫৬।

পরবর্তীতে গুরুত্বপূর্ণ এই মামলাটি পিবিআই ডাকা জেলাকে তদন্ত করতে দেয়া হয়। তদন্তে পিবিআই গ্রেফতারকৃত আসামিদের সংশ্লিষ্টতা পেয়ে তাদের আটক করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) সালেহ ইমরান মহানগর নিউজকে জানান, গত কোরবানীর ঈদের কিছুদিন আগে এই গ্রুপটি গার্মেন্টসের স্টাফ বাস নিয়ে ডাকাতিতে নামে। মুলত গার্মেন্টস ছুটির পর শ্রমিকদের পৌঁছে দিয়ে মধ্য রাতে তারা এই কাজটি করে।

বাসটি একেএইচ গার্মেন্টেস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের স্টাফদের চুক্তিভিত্তিক আনা নেয়া করতো। এই সুবাধে তারা বাসের সামনে ‘স্টাফ বাস’ লেখা স্টিকার ব্যবহার করতো। সাধারণ শ্রমিকরা স্টাফ বাস ভেবে ওই বাসটিতে ভাড়ায় চড়তো। এই ফাঁকে তারা সুযোগ বুঝে যাত্রীদের জিম্মি করে মূল্যবান জিনিসপত্র কেড়ে নিয়ে পথে ফেলে যেতো।

তিনি আরো জানান, এই মামলায় ১১ জনকে আসামি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা সবাই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এদের বিরুদ্ধে এর আগেও ছিনতাই এবং মাদক মামলার অভিযোগ রয়েছে।

এএমএস/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...