chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

চসিক নির্বাচন : অর্ধেকের বেশি ভোট কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে; নির্বাচনী উত্তাপ ততই বাড়ছে। নির্বাচন ঘিরে কিছু সহিংস ঘটনার পর, অর্ধেকের বেশি ভোট কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ প্রশাসন।

ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর। একই সাথে সংঘাত এড়াতে নির্বাচনের দিন বিজিবিকে মাঠে রাখার সিদ্ধান্ত রয়েছে নির্বাচন কমিশনের।

সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে কাউন্সিলর পর্যায়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের পাশাপাশি শুরু থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছে বিদ্রোহী প্রার্থীরা। অন্যদিকে নির্বাচনী প্রচারণায় আছে বিএনপি প্রার্থীরাও। এমন পরিস্থিতিতে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে আগে থেকেই সতর্ক আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় ৭২৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৪১০টিকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর বলেছেন, কয়েকটি কেন্দ্রের ভোটার সংখ্যা, কেন্দ্রের লোকেশন এবং নির্বাচন সংক্রান্ত পূর্বে যদি কোন ইতিহাস থাকে- সেগুলোকে মাথায় রেখে আমরা কেন্দ্রগুলোকে ঝুঁকি, গুরুত্বপূর্ণ অথবা সাধারণ নির্ধারণ করে থাকি।

এছাড়া নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৫টি ওয়ার্ডকেও ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় নেয়া হয়েছে। নির্বাচন নিয়ে সহিংসতায় এরই মধ্যে মারা গেছেন দুজন। নির্বাচনী সংঘাত নিয়ন্ত্রণের দাবি সচেতন নাগরিকদের।

প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন মজুমদার বলেন, প্রার্থীদের অনেকেই এলাকায় প্রভাব বিস্তার, প্রভাবের সাথে স্বার্থসিদ্ধি, স্বার্থসিদ্ধির সাথে অর্থবিত্ত এই বিষয়গুলো তাদের মধ্যে থাকে। নির্বাচনকে জনসেবার চেয়ে বাণিজ্যিকভাবে গ্রহণ করার কারণে এই কাউন্সিলর প্রার্থীরা বিরাট একটা সংকট তৈরি করতে পারেন। এদেরকে যদি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় এবং মনিটরিং করা যায় তাহলে ভোটের দিনে উৎসবমুখর একটি নির্বাচন আমরা প্রত্যাশা করতে পারি।

এদিকে কেন্দ্রভিত্তিক চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলার পাশাপাশি, ভোট গ্রহণের দিন বিজিবি মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এছাড়া কর্ণফুলী নদীতে মোতায়েন থাকবে কোস্টগার্ড।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, চসিক নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা যাতে একটা সুষ্ঠ নির্বাচন করতে পারি, সেজন্য যে ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার তার সবগুলো ব্যবস্থাই আমরা গ্রহণ করেছি।

শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন শেষ করতে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এসএএস/নচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...