chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ক্ষমতাসীন দলের অস্ত্রের ঝনঝনানি শুরু হয়েছে: ডা. শাহাদাত

ডেস্ক নিউজ: অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান কিংবা বৈধ অস্ত্র জমা নেয়ার কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝনঝনানি, হানাহানি শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন চসিক নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন

আজ শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি ) নগরের ১৬ নম্বর চকবাজার ওয়ার্ডে গণসংযোগকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, প্রতিটি নিবার্চনের আগে নিয়ম অনুযায়ী সকল বৈধ অস্ত্র জমা নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসন তৎপর থাকে। কিন্তু চসিক নিবার্চনে প্রশাসন এখনো পর্যন্ত অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান কিংবা বৈধ অস্ত্র জমা নেয়ার কোনো ধরনের উদ্যোগ নেয়নি। ফলে প্রতিদিন ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝনঝনানি, হানাহানি শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে পাঠানটুলি ও বাকলিয়াতে নিজেদের মধ্যে গোলাগুলি ও ছুরিকাঘাতে ২ জন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতেও নগরের হালিশহর রামপুর ওয়ার্ডের বড়পুকুর পাড়ে ধানেরশীষ প্রতীকের পোষ্টার লাগাতে গেলে যুবলীগ কর্মীরা হামলা চালায়।

ডা. শাহাদাত বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগ সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা অবৈধ অস্ত্র সাধারণ ভোটার ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ভয়ভীতি ছড়ানোর জন্য ব্যবহার করতে পারে। নিবার্চনের আগে আরও হামলা এবং হতাহতের ঘটনা ঘটার আশঙ্কায় সাধারণ ভোটাররা শঙ্কিত।

‘এসব খুনাখুনি বন্ধে ও সাধারণ ভোটার এবং বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের নিরাপত্তায় অবিলম্বে লাইসেন্স করা অস্ত্র জমা নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।’

গণসংযোগে অংশ নিয়ে দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, ‘ভোট আপনার পবিত্র আমানত। ভোট দেয়া নাগরিক অধিকার। ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে আসুন। আপনার ভোট আপনি দেবেন। অবরুদ্ধ গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে আপনার রায় দিয়ে যোগ্য প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনকে নির্বাচিত করতে হবে।’

গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইউনুচ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী বেলাল উদ্দিন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য গাজী সিরাজ উল্লাহ, মো. কামরুল ইসলাম, নগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী প্রমুখ।

এমআই/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...