chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

কোহলিকে টপকে দুইয়ে স্মিথ

খেলা ডেস্ক: ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) প্রকাশিত হালনাগাদ র‍্যাংকিংয়ে কোহলিকে পেছনে ফেলে দুইয়ে উঠে এসেছেন অস্ট্রেলিয়ার সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ। তবে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তার রেটিং পয়েন্ট ৯১৯, যা যেকোনো কিউই ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ।

পিতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকা বিরাট কোহলিকে দুই নম্বর থেকে তিনে পাঠিয়েছেন স্মিথ। তিনি উঠে এসেছেন দুই নম্বরে। সদ্য সমাপ্ত সিডনি টেস্টের দুই ইনিংসে যথাক্রমে সেঞ্চুরি ও হাফসেঞ্চুরির পুরস্কারস্বরুপ দুই নম্বর স্থানটি পেয়েছেন স্মিথ।

সোমবার শেষ হওয়া সিডনি টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১৩১ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে স্মিথ খেলেন ৮১ রানের ইনিংস। যার সুবাদে ড্র হওয়া ম্যাচটিতে তাকেই দেয়া হয় ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার।

এর একদিন পর পুরস্কার পেলেন আইসিসি থেকেও। পুনরায় তিনি ঢুকেছেন ৯০০ রেটিংয়ের ক্লাবে। ঠিক ৯০০ রেটিং নিয়ে বসেছেন র‍্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে। কোহলির নামে পাশে রয়েছে ৮৭০ রেটিং।

স্মিথ-কোহলির র‍্যাংকিং অদল-বদলের দিন নিজ দেশের রেকর্ডটি আরও বাড়িয়েছেন উইলিয়ামসন। আগের রেকর্ডটিও তারই ছিল। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯১৫ রেটিংয়ের রেকর্ড গড়েন তিনি। তখন ভেঙেছিলেন ১৯৮৫ সালে করা স্যার রিচার্ড হ্যাডলির ৯০৯ রেটিং পয়েন্টের রেকর্ড।

আর এবার তিনি সেই রেটিংকে বাড়িয়ে নিয়ে গেছেন ৯১৯-এ। মূলত পরপর তিন ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি, সেঞ্চুরি ও ডাবল সেঞ্চুরির সুবাদেই নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রেটিংয়ের রেকর্ড নতুন করে লিখেছেন। বর্তমান ব্যাটিং র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ দশে নিউজিল্যান্ডের অন্য ব্যাটসম্যান হেনরি নিকলস। তিনি তিন ধাপ এগিয়ে ৭৪৭ রেটিংয়ে অবস্থান করছেন নয় নম্বরে।

এদিকে ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ রেটিংয়ে কোহলির খুব কাছে চলে এসেছেন অস্ট্রেলিয়ার আরেক ব্যাটসম্যান মার্নাস লাবুশেন। সিডনি টেস্টে ৯১ ও ৭৩ রানের দুইটি ইনিংস খেলা লাবুশেনের বর্তমান রেটিং ৮৬৬।

শেষ টেস্টে ভালো করতে পারলে কোহলিকে আরও একধাপ নিচে নামিয়ে তিনে উঠে যাবেন লাবুশেন।

বোলারদের মধ্যে তিন ধাপ এগিয়ে পাঁচে উঠে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার জশ হ্যাজলউড। উল্টোদিকে তিন ধাপ পিছিয়ে আটে নেমে গেছেন মিচেল স্টার্ক। যথারীতি শীর্ষেই অবস্থান করছেন প্যাট কামিনস।

এমআই/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...