chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

পূজা দিতে যাওয়া নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পূজা দিতে গিয়ে প্রথমে ধর্ষণ এবং পরে হত্যার শিকার হয়েছেন ৫০ বছরের এক নারী। ভারতের উত্তরপ্রদেশে এই নির্মম ঘটনা ঘটিয়েছে এক পুরোহিত ও তার শিষ্যরা।

রোববার সন্ধ্যায় রাজ্যের বদায়ুন জেলার উঘৈতি থানা এলাকায় এ ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে আসে বুধবার।

রোববার বিকেলে স্থানীয় মন্দিরে পুজা দিতে গিয়েছিলেন ওই বৃদ্ধা। এরপর আর তিনি বাড়ি ফেরেননি। গভীর রাতে তাকে রাস্তার পাশে ফেলে যায় এক পুরোহিতসহ কয়েকজন।

ওই নারীর এক ছেলে স্থানীয় সংবামাধ্যমকে বলেছেন, ‘তাদের নিজেদের গাড়িতে করে তাকে নিয়ে আসা হয়েছিল। তাকে যখন ফেলে রেখে গিয়েছিল তখনই তিনি মারা যান। যাজক ও অন্যরা তাকে দরজার সামনে ফেলে দিয়ে দ্রুত চলে যায়।’

মঙ্গলবার ময়নাতদন্তের রিপোর্টে দেখা গেছে, ধর্ষণের পর ওই নারীর যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে দেয় দুষ্কৃতিকারীরা। প্রচণ্ড রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়। এমনকি ভারী বস্তু দিয়ে তার বুকেও আঘাত করা হয়। তাতে ভেঙে যায় তার পাঁজরের হাড়। তার একটি পা-ও ভেঙে দেওয়া হয়।

এই ঘটনায় পুরোহিত সত্যনারায়ণ, তার সহযোগী বেদরাম এবং গাড়ির চালক জসপালের নাম সামনে এসেছে। পুরোহিত হিসেবে এলাকায় পরিচিত বাবা সত্যনারায়ণ।

নির্যাতিতা যে মন্দিরে পুজা দিতে গিয়েছিলেন, তিনি সেখানকার পুরোহিত কি না, তা নিশ্চিতভাবে এখনও জানা যায়নি।

নির্যাতিতা যে মন্দিরে পুজা দিতে গিয়েছিলেন, তিনি সেখানকার পুরোহিত কি না, তা নিশ্চিতভাবে এখনও জানা যায়নি। এদের মধ্যে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এমআই/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...