chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

২০২০ সালে যাদের হারিয়েছে বিনোদনপাড়া

ডেস্ক নিউজ:  ২০২০, বিষাদে ভরা একটি বছর। এই বছরেই বিশ্বজুড়ে করোনা তাণ্ডব শুরু হয়, কেড়ে নেয় কোটি কোটি মানুষের প্রাণ। বিনোদনপাড়াও হারিয়েছে অনেক উজ্জ্বল নক্ষত্রদের। চলুন দেখি নিই ২০২০ সালে যেসব তারাকা মারা গেছেন…  

এন্ড্রু কিশোর: ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। ২০২০ সালের ৬ জুলাই সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। বাংলা সংগীতের জনপ্রিয় এ শিল্পী ‘প্লে-ব্যাক সম্রাট’ হিসেবেও পরিচিত।

আলাউদ্দীন আলী: সুর সম্রাট আলাউদ্দীন আলী মারা গেছেন ২০২০ সালের ৯ আগস্ট। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। আলাউদ্দীন আলী দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুস এবং রক্তের বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন।

সাদেক বাচ্চু: করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ রাজধানীর একটি হাসপাতালে মারা যান জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। জনপ্রিয় এ অভিনেতার আসল নাম মাহবুব আহমেদ সাদেক। কিংবদন্তি পরিচালক এহতেশামের ‘চাঁদনী’ সিনেমায় তার নাম বদলে সাদেক বাচ্চু রাখা হয়। তিনি চলচ্চিত্র অভিনেতা, নাটক রচয়িতা, নাট্যনির্দেশক ও ডাক বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন।

আলী যাকের: ৭৬ বছর বয়সে চিরবিদায় নিয়েছেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের। ২৭ নভেম্বর রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। বার্ধক্য, হৃদরোগসহ একাধিক শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন আলী যাকের। মৃত্যুর আগে করোনায় আক্রান্তও হয়েছিলেন তিনি।

কে এস ফিরোজ: শোবিজের পরিচিত মুখ অভিনেতা কে এস ফিরোজ মারা গেছেন ৯ সেপ্টেম্বর সকাল ৬টা ২০ মিনিটে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও করোনা উপসর্গ ছিল তার। ১৯৪৪ সালে বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন এ অভিনেতা।

চিত্রনায়ক সাত্তার: আশির দশকের জনপ্রিয় নায়ক সাত্তার। ১৯৬৪ সালে কর্মজীবন শুরু করেছিলেন। ১৯৬৮ সালে ইবনে মিজান পরিচালিত ‘আমির সওদাগর ও ভেলুয়া সুন্দরী’ সিনোমায় শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেন তিনি।

আবদুল কাদের: ২৬ ডিসেম্বর মারা যান অভিনেতা আবদুল কাদের মারা গেছেন। রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। ১৯৭২ সাল থেকে টেলিভিশন ও ১৯৭৩ সাল থেকে রেডিও নাটকে অভিনয় শুরু করেছিলেন তিনি। টেলিভিশনে তার অভিনীত প্রথম ধারাবাহিক নাটক ‘এসো গল্পের দেশে’। তিনি দুই হাজারের বেশি নাটকে অভিনয় করেছেন। আবদুল কাদের বাংলাদেশ টেলিভিশনের নাট্যশিল্পী ও নাট্যকারদের একমাত্র সংগঠন টেলিভিশন নাট্যশিল্পী ও নাট্যকার সংসদের (টেনাশিনাস) সহ-সভাপতি ছিলেন।

নচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...