তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপিতে নতুন প্রাণ সৃষ্টি হয়েছে : ডা.শাহাদাত

নিজস্ব প্রতিবেদক : মঈনউদ্দিন-ফখরুদ্দিনের অবৈধ সরকার ও আওয়ামী লীগের গভীর ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান কেবল দলের নেতাকর্মীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই, বরং তিনি দেশের আপামর মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতীকে পরিণত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন।

আজ শুক্রবার (২০ নভেম্বর) বাদে জুমা হযরত শাহ আমানত (রঃ) মাজার সংলগ্ন মসজিদে তারেক রহমানের ৫৬ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দোয়া মাহফিলে উপস্থিত মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে একথা বলেন।

তিনি বলেন, হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দী থেকে মুক্ত করতে হাজার হাজার মাইল দুরে অবস্থান করেও নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তারেক রহমান। বেগম খালেদা জিয়া দেশকে স্বৈরাচারমুক্ত করতে যেমনিভাবে রাজপথে নেমেছিলেন একইভাবে তারেক রহমানও স্বৈরাচারের কবল থেকে দেশ ও জাতিকে উদ্ধার করতে কাজ করে যাচ্ছেন। তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপিতে নতুন প্রাণ সৃষ্টি হয়েছে। দেশের মানুষ তারেক রহমানের দিকে তাকিয়ে আছেন।

তিনি আরো বলেন, তারেক রহমান সুদুরে বসেও অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দলকে সুসংগঠিত করতে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বে বিএনপির নেতাকর্মীরা বর্তমানে সুসংঘবদ্ধ। দেশ ও জাতিকে স্বৈরাচারের সকল অন্যায় অপকর্মের ছোবল থেকে রক্ষা করে বহুদলীয় গণতন্ত্র পুণ:প্রতিষ্ঠায় তার অবদান দলের নেতাকর্মীদের নিকট অনন্য প্রেরণা। দেশনায়ক তারেক রহমানের জন্মদিনে হৃদয় নিংড়ানো শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করছি।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, বর্তমান সরকার আজকে ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা বলছে। তারাই নাকি এটাকে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে নিয়ে গেছে। অথচ এটা শুরু করেছিলেন তারেক রহমান। ইউনিয়ন পর্যায় থেকে সব তথ্য ডাটাবেইস করে রেখেছিলেন। কিন্তু এক-এগারোতে সব নষ্ট করা হয়। তারেক রহমান ২০০১ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ শুরু করেছিলেন। তারেক রহমানের নেতৃত্বে বেগম খালেদা জিয়া ও দেশকে মুক্ত করা হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি আবু সুফিয়ান বলেন, তারেক রহমান জন্মসূত্রে নেতৃত্ব পেয়েছেন এবং অতি অল্প সময়ে নেতৃত্বের গুণাবলি অর্জন করেছেন। দুঃসময়ে দূর থেকে দলকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে চালাচ্ছেন। তার সুদুরপ্রসারী চিন্তায় অল্পসময়ের মধ্যে বিএনপিকে গোছানোর কাজ শেষ করেছেন। তিনি তারেক রহমানের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

দোয়া মাহফিলে শহীদ জিয়াউর রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর রুহের মাগফেরাত কামনা এবং বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের দীর্ঘায়ু শারীরিক সুস্থতা ও রোগমুক্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। দোয়া ও মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন জামে মসজিদের খতিব। পরে মাজার সংলগ্ন এতিমখানায় এতিমদের মাঝে মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে খাবার বিতরন করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি এম এ আজিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, হারুন জামান, নিয়াজ মোঃ খান, ইকবাল চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এস এম সাইফুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক কাজী বেলাল উদ্দীন, আবদুল হালিম শাহ আলম, ইসকান্দার মির্জা, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আবদুল মান্নান, জাহাঙ্গীর আলম দুলাল, আনোয়ার হোসেন লিপু, গাজী সিরাজ উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মন্জুর আলম চৌধুরী মন্জু, মো. কামরুল ইসলাম, সম্পাদকবৃন্দ ইসহাক চৌধুরী আলিম, ডা. এস এম সরওয়ার আলম, শহিদুল ইসলাম শহিদ, আবদুল বাতেন, নুরুল্লা বাহার, সহ-সম্পাদক একেএম পেয়ারু, আবদুল হালিম স্বপন, মো. ইদ্রিস আলী, খোরশেদ আলম কুতুবী, আলমগীর নুর, আবু মুছা, ইউনুছ চৌধুরী হাকিম, মোস্তাফিজুর রহমান বুলু, আলী আজম, থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ জাকির হোসেন, আফতাবুর রহমান শাহীন, নগর সদস্য বুলবুল আহমেদ, ওয়ার্ড় বিএনপি সভাপতি নবাব খান, আলাউদ্দিন আলী নুর, এস এম মফিজ উল্লাহ, এস এম ফরিদুল আলম, মো. আজম, রফিক চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক ছাদেকুর রহমান রিপন, মোঃ এমরান উদ্দীন, সৈয়দ আবুল বশর, মন্জুর কাদের, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, জিয়াউর রহমান জিয়া, হাসান উসমান, আবু ফয়েজ, নগর মৎস্যজীবি দলের আহবায়ক হাজী নুরুল হক, তাঁতী দলের আহবায়ক মনিরুজ্জামান টিটু, নগর যুবদলের সহসভাপতি নাসিম চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক মোঃ সেলিম, তাঁতীদলের সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান মুরাদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।

এসএএস/এএমএস

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...