অটোরিকশায় প্রেম, যাত্রা বিরতিতে ছিনতাই!

ডেস্ক নিউজ: অটোরিকশায় প্রেম, যাত্রা বিরতিতে ছিনতাই। চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেফতারের পর এমন তথ্য জানিয়েছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

বুধবার (১৮ নভেম্বর) কোতোয়ালী থানায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) পলাশ কান্তি নাথ।

গ্রেফতারকৃত এই যুগলের নাম- রাকিবুল হাসান রাকিব (২৫) ও তার প্রেমিকা রুপালী রুপা প্রকাশ নিপা (২০)। চক্রের আরেক সহযোগী সদস্য রাশেদকে গ্রেফতার করা যায়নি।

পলাশ কান্তি নাথ জানান, রাকিব, নিপা, রাশেদ নগরের বগার বিল ও দেওয়ানবাজার এলাকায় বসবাস করে। একই এলাকার হওয়ার সুবাদে তাদের তিন জনেরই রয়েছে ঘনিষ্ঠতা। কথায় আছে প্রেমের পড়লে সাহস বেড়ে যায়। তখন অদম্য এক জয়ের নেশা মানুষের মাঝে কাজ করে। কিন্তু এই যুগলের মাঝে কাজ করে নৃশংসতা। প্রেমিক রকিবের কাঁধে মাথা রেখে ধারালো টিপ ছোড়াসহ দুর্ধর্ষ ছিনতাইয়ে নামে নিপা। মুহূর্তের মধ্যে ছিনিয়ে নেয় টার্গেট কৃত ব্যক্তির মোবাইল ফোন, টাকা-পয়সা। কেউ যদি দিতে অস্বীকৃতি জানায় তবে তাকে ছুরিকাঘাত করে রক্ত দিয়ে হাত রাঙ্গায় রাকিব ও নিপা।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে পলাশ কান্তি আরও জানান, নিপা-রাকিব একা এই কাজ করে না। তাদের এই অপকর্মের আরেক সহযোদ্ধা রাশেদ। চক্রটি ছিনতাই কাজে সিএনজি অটোরিকশা ব্যবহার করে। সেই অটোরিকশার পেছনে বসে নিপা-রাশেদ প্রেম করে। আর চালকের পাশে বসে রাশেদ। রাশেদ এমনভাবে সামনে বসে এতে চালকের সন্দেহ করার কোন সুযোগ নেই। দেখে মনে হবে পিছনে বসা দুজনই প্রেমিক প্রেমিকা আর সামনে বসে আছে তাদের পরম বন্ধু।

সাধারণত ২’শ থেকে ৩’শ টাকা দিয়ে ঘন্টা খানেকের জন্যে তারা অটোরিকশা ভাড়া নেয়। এরপর খুঁজতে থাকে অন্ধকার অলি-গলি। টার্গেটকৃত ব্যক্তিকে একা পেলে খানিকটা যাত্রা বিরতি দিয়ে গাড়ি থেকে নেমে কথা বলার ভান ধরে নিপা-রাকিব। তারপর সুযোগ বুঝে সেই ব্যক্তির সবকিছু নিয়ে চম্পট দেয়। এসময় চালককে জিম্মি করে রাশেদ। গাড়িও থাকে চলন্ত অবস্থায়। চালক যেতে না চাইলে তাকেও ছুরিকাঘাতের ভয় দেখানো হয়।

গত ১৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় কে বি আব্দুস সাত্তার সড়কে হুমায়ুন মোর্শেদের বাড়ির সামনে অরবিন্দু দত্ত (৩৪) নামে এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে মোবাইল ছিনতাই করে নিপা-রাকিব ও তাদের সহযোগী রাশেদ। এ ঘটনায় থানায় মামলা হওয়ার পর আশেপাশের সিসিটিভি ফুটেজ ও তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এছাড়া অপর আরেকটি অভিযানে ছিনতাইকারী গ্রুপের আরও পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলো- নাইম (২০), ফারজানা বেগম (২৬), মো. রুবেল (২৮), মো. রাজু ওরফে সুমন (২৩), ও মো. আলামিন (২৮)।

এমএইচকে/চখ/নচ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...