চর্বি কমানোর সহজ উপায়

 ডেস্ক নিউজ:  পেটের চর্বি খুবই অস্বস্তিকর ও বিভিন্ন রোগের কারণ। তাই পেটে অতিরিক্ত চর্বি থাকলে অবশ্যই কমিয়ে ফেলতে হবে।  অতিরিক্ত তেল-মসলাজাতীয় খাবার খাওয়া ও খাবারে অনিয়মসহ বিভিন্ন কারণে পেটে মেদ জমতে পারে।

তাই রুটিন মেনে শরীরচর্চা ও ডায়েট করা উচিত। আর চর্বি জাতীয় খাবার না খাওয়া ভালো। তবে কিছু ফল রয়েছে, যা পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমায়।

লেবু পানি খেয়ে দিন শুরু করতে পারেন

পেটের চর্বি কমাতে চাইলে উষ্ণ লেবু পানি পান করে দিন শুরু করতে পারেন। ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদানের কারণে লেবু পানি ভালো হজমে সহায়তা করে এবং শরীরকে বিশুদ্ধ করে, যা পেটের চর্বি পোড়ায়। শুধু লেবু পানি খেতে অনীহা হলে এর সঙ্গে এক চামচ মধু মেশাতে পারেন।

জিরা পানিতে দিন শুরু

লেবু পানির বিকল্প হিসেবে জিরা পানি খেয়েও দিন শুরু করতে পারেন। প্রতিদিন সকালে জিরা পানি পান করলে চর্বি কমাতে সহায়তা করে। এটি এটি হজমক্রিয়ার উন্নতির পাশাপাশি তলপেটের চর্বি কমাতে সহায়তা করে।

সকালের নাশতায় প্রোটিন রাখুন

শরীরে শক্তি জোগাতে প্রোটিন গুরুত্বপূর্ণ। সকালে প্রোটিন খেলে পেশি গঠনে সহায়তা করে এবং সারা দিন পেট পূর্ণ থাকে; ক্যালরির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। প্রোটিন শরীরে ব্লাড সুগারের নিয়ন্ত্রণ করে।

শস্যজাতীয় খাবার তালিকায় রাখুন

এগুলোতে প্রচুর ফাইবার এবং প্রাকৃতিক পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এটি অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে। এটি দীর্ঘক্ষণ ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং উচ্চমাত্রায় ক্যালরিযুক্ত খাবার গ্রহণের ঝোঁক কমিয়ে দেয়। শস্যজাতীয় খাবার ওজন এবং পেটের চর্বি কমাতে সহায়তা করে।

হলুদ

প্রদাহজনিত কারণে স্থূলতা বাড়ে। হলুদে থাকা প্রদাহ প্রতিরোধী উপাদান স্থূলতা কমাতে সহায়তা করে। ওজন কমানোর খাদ্যতালিকায় হলুদ রাখতে পারেন। এটি ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে চমৎকার কাজ করে।

ইয়োগা বা মেডিটেশন

মানসিক চাপ এবং উদ্বিগ্ন কর্টিসেলের মতো চর্বি জমানো হরমোন বেড়ে যায়। এই হরমোন বেড়ে গেলে ক্ষুধার মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। যার ফলে উচ্চ ক্যালরি যুক্ত খাবার গ্রহণ বেড়ে যায় এবং পেটে চর্বি জমে। এ কারণে মানসিক চাপমুক্ত থাকতে নিয়মিত ইয়োগা এবং মেডিটেশন করতে হবে।

পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুণ

ওজন কমাতে কার্যকর ভূমিকা রাখে পানি। এটি শরীর আর্দ্র রাখে এবং শরীরের জন্য ক্ষতিকর খাবার গ্রহণের মাত্রায় কমিয়ে দিতে সহায়তা করে। খাওয়ার আগে পানি পান করলে বেশি খাওয়া থেকে বিরত থাকা যায়, যা পেটের চর্বি বাড়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয়।

নচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...