ইরফান সেলিমের সহযোগী দিপু টাঙ্গাইল থেকে গ্রেপ্তার

ডেস্ক নিউজ : নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় সংসদ সদস্য হাজি সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিমের সহযোগী এবি সিদ্দিক ওরফে দিপুকে (৫২) টাঙ্গাইল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি হাজি সেলিমের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার এইচএম আজিমুল হক মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) সকালে গণমাধ্যমকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

প্রতিবেশীরা জানায়, গ্রেপ্তার দিপু টাঙ্গাইল শহরের আকুর টাকুর পাড়ার শ্রমিক নেতা মরহুম ভোলা মিয়ার বড় ছেলে। তারা দুই ভাই তিন বোন। এবি সিদ্দিক ওরফে দিপু টাঙ্গাইল শহরের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক বিদ্যালয় থেকে ১৯৮৫ সালে এসএসসি পাস করেন। পরে ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৮৭ সালে এইচএসসি পাস করেন। এ সময় তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। ১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এলে তিনি দেশের বাইরে চলে যান। দীর্ঘদিন বিদেশে থাকার পর ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে তিনি দেশে ফিরে এসে টাঙ্গাইল শহরের ভিক্টোরিয়া রোডে ট্রাভেল এজেন্সী খোলেন। ট্রাভেল এজেন্সীর ব্যবসায় সুবিধা করতে না পেরে তিনি হাজী সেলিমের বডিগার্ড হিসেবে চাকুরি নিয়ে ঢাকায় চলে যান।

এর আগে সোমবার (২৬ অক্টোবর) এ মামলায় গ্রেপ্তার হন ইরফান সেলিম, তাঁর দেহরক্ষী মো. জাহিদ ও গাড়িচালক মিজানুর রহমান। ইরফান ও তাঁর তিন সহযোগীর বিরুদ্ধে সোমবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় মামলাটি করেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহম্মেদ খান। ওই মামলায় মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক ওরফে দিপু ৩ নম্বর আসামি।

এসএএস/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...