রূপা বিক্রি হবে চার ক্যাটাগরিতে

ডেস্ক নিউজ: আগে রূপার কোনো ক্যাটাগরি না থাকলেও এখন থেকে ক্যাটাগরি অনুযায়ী বিক্রি হবে অলংকারটি । মান অনুযায়ী রূপার চারটি নতুন ক্যাটাগরি করেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

নতুন ক্যাটাগরি অনুযায়ী, ভালো মানের রূপা ২২ ক্যারেট, এরপর ২১ ক্যারেট, ১৮ ক্যারেট ও সনাতন পদ্ধতিতে রূপার হিসাব করবে বাজুস, যা বাংলাদেশে এই প্রথম।

রোববার (২০ সে‌প্টেম্বর) সংগঠনের সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে বাজুস।

দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, আগে রূপার কোনো ক্যাটাগরি ছিল না। মান অনুযায়ী ক্যাটাগরি নির্ধারণ করা হয়েছে। এই ক্যাটাগরিতেই এখন স্বর্ণের ন্যায় রূপার দামও কমানো বাড়ানো হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্বর্ণের মতো রূপার মান নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।

এক্ষেত্রে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এনে দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে ব্যবসায়ীদের হলমার্কিংয়ের আওতায় আনার জন্য রূপার অলংকারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) হতে বাংলাদেশের বাজারে রূপার অলংকারের মূল্য কার্যকর হবে।

নতুন ক্যাটাগরি অনুযায়ী, ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি রূপার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫১৬ টাকা। ২১ ক্যারেটের রূপার দাম ১৪৩৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ১২২৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রূপার দাম ৯৩৩ টাকা।

এমআই/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...