টানা পাঁচ দিন অপেক্ষার পর দেশে ঢুকছে ভারতীয় পেঁয়াজ

ডেস্ক নিউজ : অবশেষে টানা পাঁচ দিন অপেক্ষার পর সাতক্ষীরার ভোমরা, চাঁপাই নবাবগঞ্জের সোনামসজিদ ও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় পেঁয়াজ দেশে আসতে শুরু করেছে।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা বন্দর থেকে ভোমরা বন্দরে পেঁয়াজের ৩০০টি গাড়ি ঢুকতে শুরু করে। এর আগে শনিবার থেকে ভারত সরকার পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিলে শ্রমিকদের মধ্যে কর্মচাঞ্চল্যও বেড়ে যায়।

তবে সেসব পেঁয়াজের একটি অংশ পচে নষ্ট হয়ে গেছে বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ীরা। তার আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন সীমান্তে আটকে থাকা পেঁয়াজবোঝাই ট্রাককে বাংলাদেশে রপ্তানির জন্য শুল্ক বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছে ভারত সরকার।

জানা যায়, আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দর থেকে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজবাহী প্রথম ট্রাক প্রবেশ করে। আজ-কালকের মধ্যে টেন্ডারকৃত আটকে পড়া সব পেঁয়াজ দেশে প্রবেশ করবে।

সোনামসজিদ শুল্ক স্টেশনের সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, একটি ট্রাকে ২৫ মেট্রিক টন করে ৭ ট্রাকে ১৭৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছে। আর রপ্তানিকৃত পেঁয়াজ বন্দরে দ্রুত ছাড়করণ করে দেশের অভ্যন্তরীণ পেঁয়াজের বাজার স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

ভোমরা স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, করোনাকালীন ৯০ দিন বন্ধ থাকায় আমরা এমনিতে ক্ষতির শিকার হয়েছি। তার ওপর ৫ দিন পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় আরও ক্ষতির শিকার হই। শেষ পর্যন্ত ভারতীয় পেঁয়াজ ঢুকতে শুরু করেছে এটাই আমাদের স্বস্তি।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর ভার‌তের বা‌ণিজ্য মন্ত্রণাল‌য়ের অধীন ডায়‌রেক্ট‌রেট জেনা‌রেল অব ফ‌রেন ট্রেড ভারত থে‌কে সব ধর‌নের পেঁয়াজ রপ্তা‌নি বন্ধ করার আদেশ সম্বলিত সার্কুলার জা‌রি ক‌রে‌ছিল। এতে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা বন্দরে বাংলাদেশে আমদানিমুখী প্রায় ৩০০ গাড়িভর্তি পেঁয়াজ আটকা পড়ে। এরই মধ্যে ওই পেঁয়াজে পচন ধরতে শুরু করেছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

চখ/রাজীব

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...