আল্লামা শফী’র মরদেহ হাটাহাজারীতে

নিজস্ব প্রতিবেদক : আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারী মাদরাসায় পৌঁছেছে। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে ফরিদাবাদ মাদরাসা থেকে লাশবাহী গাড়ী রওয়ানা দিয়ে সকাল ৯ টায় মাদরাসায় পৌঁছে।

মাদরাসা কর্তৃপক্ষ আল্লামা আহমদ শফীকে শেষবারের মতো দেখানোর ব্যবস্থা করেছে। আল্লামা শফীর মরদেহ মাদরাসার দারুল হাদিস ভবনের নিচতলায় রাখা হয়েছে। সেখানে শেষবারের মতো এক নজর দেখতে, শেষবারের মতো বিদায় জানাতে ভিড় করছেন ধর্মপ্রাণ মানুষ।

জোহরের নামাজের পর হাটাহাজারী মাদরাসা মাঠে আল্লামা শফীর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে আল্লামা শফীর অসিয়ত অনুযায়ী মাদরাসা সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হবে। ইতোমধ্যে কবর খননের কাজও শেষ হয়েছে। আল্লামা শফীর নামাজে জানাজার ইমামতি করবেন বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ।

জানাজায় অংশ নিতে পুরোদেশের স্রোত এখন হাটহাজারী অভিমুখে। রাত থেকেই মাদরাসায় আসতে শুরু করেছে আলেম-উলামা, ছাত্র ও ধর্মপ্রাণ জনতা। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কসহ চট্টগ্রাম অভিমুখী রাস্তায় দেখা যায় জানাজাগামী গাড়ির স্রোত।

হাটহাজারী মাদরাসায় উপস্থিত মোশাহিদ রহমান জানিয়েছেন, মাদরাসার ক্যাম্পাস, মাঠ, রাস্তা ও আশপাশের এলাকাজুড়ে শুধু সাদা টুপি-পাঞ্জাবি পরিহিত মানুষ। শোকার্ত মানুষের ভিড় এখনই সামাল দেওয়া কষ্ট হচ্ছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ভিড় বাড়ছে।

হাটহাজারী বাসস্টেশন থেকে মাদরাসামুখি সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ, বিজিবি ও ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানী গেণ্ডারিয়াস্থ আসগার আলী হাসপাতালে সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে ইন্তেকাল করেন।

তার ইন্তেকালের খবরে আলেম সমাজের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনি হেফজাতে ইসলামের আমির ছাড়াও কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাক ও কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ছিলেন।

এসএএস/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...