ফেসবুকে স্টার্টাস দিয়ে আবুল খায়ের কারখানায় যুবকের আত্মহত্যা

চট্টগ্রাম ডেস্ক : সীতাকুণ্ড আবুল খায়ের গ্রুপের কারখানার রেষ্ট হাউজের একটি রুম থেকে গলায় ফাঁস দেওয়া এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার (৯সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুরস্থ ওই কারখানা থেকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই মামুন।

তবে এব্যাপারে একাধিকবার ফোন করেও সীতাকুণ্ড মডেল থানা পুলিশের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, নিহতের নাম জিলাত আলী (২১)। জিনাত মৌলভিবাজার জেলার শমসেরগঞ্জ থানার রাপগাঁও গ্রামের শাহাদাত আলীর ছেলে। তিনি ওই কারখানার ক্লিনার হিসেব কর্মরত ছিলেন বলে জানা গেছে।

যুবকের মরদেহ উদ্ধারের তথ্যটি নিশ্চিত করে আবুল খায়ের গ্রুপের ম্যানেজার মো. ইমরুল কায়সার বলেন, ছেলেটা আমাদের ক্লিনার গ্রুপে কাজ করতো। সে ফেসবুকে “আমাকে কেউ আটকাতে পারবেনা” স্টার্টাস লিখে রুমের ভিতর দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে আত্মহত্যা করে।

পুলিশ এসে দরজা ভেঙ্গে তার লাশ উদ্ধার করে। তবে সে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা তিনি বুঝতে পারছে না বলে জানিয়েছেন।

চখ/রাজীব

Loading...