কক্সবাজারে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা, সাংবাদিককে মৃত ভেবে ফেলে গেল দুর্বৃত্তরা

কক্সবাজার প্রতিনিধি : বেসরকারি সময় টেলিভিশনের কক্সবাজারস্থ স্টাফ রিপোর্টার সুজাউদ্দিন রুবেলকে (৩০) শ্বাসরোধ করে হত্যাচেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তাকে মৃত ভেবে রাস্তার পাশে ফেলে যায় তারা। এতে প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন তিনি। তাকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার পর একটু সুস্থ বোধ করলে রাতেই বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। 

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১২ টার দিকে কক্সবাজার পুলিশ সুপার কার্যালয় লাগোয়া জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তার ব্যবহৃত আইফোনসহ দুটি মুঠোফোন নিয়ে গেলেও পকেটে থাকা নগদ টাকা নিয়ে যায়নি দুর্বৃত্তরা।

সুজাউদ্দিন রুবেল সময় টিভির পাশাপাশি স্থানীয় দৈনিক কক্সবাজারের প্রধান মেকআপ ম্যান ও স্টাফ রিপোর্টার হয়ে কাজ করেন।

বিপদাপন্ন রুবেল জানান, দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকায় কাজ শেষ করে শনিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে অফিস থেকে বেরিয়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। এসপি অফিস ও জেলা পরিষদের মাঝ দিয়ে চলা রাস্তায় জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনে এলে হঠাৎ একজন দুর্বৃত্ত পেছন থেকে গলা টিপে ধরে। এক পর্যায়ে শ্বাস বন্ধ হয়ে তিনি (রুবেল) মাটিতে ঢলে পড়লে দুর্বৃত্তরা তাকে ফেলে পালিয়ে যায়। এরপর তিনি আর কিছু জানেন না।

মোহাম্মদ ঈসমাইল নামে এক পথচারী বলেন, আমরা কয়েকজন জেলা পরিষদের পশ্চিম পাশে প্রেসক্লাবের সামনের দোকানে চা খাচ্ছিলাম। ওই সময় তিনজন যুবককে হঠাৎ পালিয়ে যেতে দেখা যায়। একইসঙ্গে একটি অটোরিকশাও যেতে দেখা যায়। এরপর কিছু দূরে দেখা যায় একজন ব্যক্তি মাটিতে পড়ে রয়েছেন। পরে তাকে উদ্ধার করে ককক্সবাজার সদর মডেল থানায় নিয়ে যাই। এরপর কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, তাকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

আহত সাংবাদিক রুবেল জানান, মাটিতে ঢলে পড়ার আগে জ্ঞান থাকা অবস্থায় মনে হয়েছে অটোরিকশা চালকসহ দুর্বৃত্তরা চারজন ছিলেন। ধস্তাধস্তি করা দুর্বৃত্ত সুঠাম দেহি বা নিয়মিত ব্যায়াম করা বলে মনে হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তার পকেটে টাকা ছিল। কিন্তু দুর্বৃত্তরা টাকা নিয়ে যায়নি। তবে আইফোনসহ দুটি মোবাইল নিয়ে গেছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুম খান বলেন, দুর্বত্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।

এসএএস/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...