শক্ত খাবার খেতে পারছেন না খালেদা জিয়া

ডেস্ক নিউজ: গত কয়েক মাস ধরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কোনো শক্ত খাবার খেতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবী ও বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

শনিবার (২৯ আগস্ট) রাতে গুলশানে খালেদা জিয়ার ভাড়াবাসা ফিরোজা’য় গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করার পর তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

সাক্ষাতের পর বাড়ির গেটে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন সাংবাদিকদের বলেন, ‘ম্যাডামের শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি অসুস্থ, তার জরুরিভাবে চিকিৎসা প্রয়োজন।’

রাত আটটার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তার আইনজীবী ও দলের যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রাত সোয়া নয়টার দিকে তিনি সেখান থেকে বের হয়ে যান।

পরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার হাতে সমস্যা, হাঁটুতে ব্যথা। ম্যাডামের ওজন কমে গেছে এবং তার রুচিও কমে গেছে। গত কয়েক মাস ধরে তিনি শক্ত কোনো খাবার খেতে পারছেন না।’

আইনজীবী বলেন, ‘তার কোনো সুচিকিৎসা হচ্ছে না। এজন্য তার ভাই সাঈদ ইস্কান্দার বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন। সেই আবেদনে দেশে এবং বিদেশে যেকোনো স্থানে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য বলেছেন।’

‘চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়া দেশের বাইরে কোন রাষ্ট্রে যাওয়ার চিন্তা করেছেন’-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খোকন বলেন, ‘দেশের বাইরে কোথায় যাবেন এখনো তা নিশ্চিত করেননি।’ ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী বলেছেন, আদালতের অনুমতি ছাড়া খালেদা জিয়া বিদেশে চিকিৎসার জন্য যেতে পারবেন না’-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘দুদকের বিজ্ঞ আইনজীবী অপ্রাসঙ্গিক কথা বলেছেন। এটা বলবেন না। সরকার মূল আদেশ দিয়েছেন। এখন আবার সরকারই বিবেচনা করতে পারেন তার মুক্তির মেয়াদ বাড়াবেন কি-না।’

তিনি বলেন, সরকার এক্সেস দিয়ে তাকে মুক্তি দিয়েছেন। এখানে আদালতের শরণাপন্ন হওয়া প্রয়োজন মনে করছি না। মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, খালেদা জিয়ার মেজর সমস্যা শারীরিক এবং ওল্ডনেস। তার বয়স এখন ৭৫ বছর।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য সরকার বিদেশ যেতে অনুমতি দেবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তার আইনজীবী ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। এছাড়া সাজা স্থগিতের মেয়াদ সরকার বাড়াবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এর আগে গত মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তি চেয়ে ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার সেই আবেদন আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছেন। এ সংক্রান্ত বিষয়েও মাহবুব উদ্দিন খোকন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বলতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার সাজা গত ২৪ মার্চ স্থগিত করে সরকার। পরের দিন ২৫ মার্চ মুক্তি পেয়ে গুলশানের বাসায় ওঠেন খালেদা জিয়া।

এমআই/

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...