ভুয়া জন্মদিন উদযাপনের জন্য খালেদা জিয়ারও বিচার হওয়া প্রয়োজন: তথ্যমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজ: ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিন উদযাপনের জন্য খালেদা জিয়ারও বিচার হওয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- প্রগতিশীল ন্যাপ (ভাসানী)।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের অন্যতম প্রধান কুশিলব জিয়াউর রহমান। তার স্ত্রী খালেদা জিয়ার ওপর যথাযথ সম্মান রেখেই বলতে চাই, আমি মনে করি জিয়াউর রহমান যেমন অপরাধী, খালেদা জিয়াও হত্যাকারীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়ায় অপরাধী। বঙ্গবন্ধুর খুনিকে, যার ফাঁসি হয়েছে, তাকে তিনি গাড়িতে পতাকা লাগিয়ে দিয়েছেন, মন্ত্রীর মর্যাদা দিয়েছেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়া, এত বছর ধরে তার নানা জন্মতারিখ ছিল, হঠাৎ ১৯৯৫ সালে তিনি ১৫ আগস্টে জন্মদিন উদযাপন শুরু করলেন। এগুলো ফৌজদারি অপরাধ। খালেদা জিয়াও অপরাধী।

‘এ কারণে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের অন্যতম প্রধান কুশিলব জিয়াউর রহমানের মুখোশ যেমন উন্মোচন করা প্রয়োজন, তেমনি হত্যাকারীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়া, হত্যাকাণ্ডকে উপহাস করা, ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিন উদযাপনের জন্য খালেদা জিয়ারও বিচার হওয়া প্রয়োজন। এটি সময়ের দাবি।’

গ্রগতিশীল ন্যাপের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক ও মওলানা ভাসানীর নাতি পরশ ভাসানীর সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান শেখ ছালাউদ্দিন ছালু, গ্রগতিশীল ন্যাপের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. বাবুল আহমেদসহ বিশিষ্ট জনেরা।

এমআই/

Loading...