দন্ডপ্রাপ্তদের রায় কার্যকর হলে শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে: আ.জ.ম. নাছির

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার সাথে বিএনপি জড়িত – এটা তাদের কর্মকাণ্ডই প্রমাণ করে। আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনায় তৎকালীন দলীয় সাধারণ সম্পাদক মরহুম আবদুল জলিল সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করতে যান। কিন্তু উপর মহলের নির্দেশে ঐ থানায় মামলা গ্রহণ করেনি পুলিশ। তাকে বলা হয় এখানে নয় অন্য থানায় মামলা করা যাবে। তিনি অন্য থানায় মামলা করতে গেলে সেখানেও নানা অজুহাত দেখানো  হয়।

শুক্রবার (২১ আগষ্ট) রাতে ২৮ নং পাঠানটুলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ  আয়োজিত ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের স্মরণে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, পরবর্তীতে তৎকালীন বিএনপি ক্ষমতাসীন সরকার বাদি হয়ে একটি মামলা রুজু হয়। ঘটনার পর সংসদে খালেদা জিয়া এই হামলা সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, এটা আওয়ামী লীগেরই কারসাজি। একটি নৃশংস হামলায় ২৪ জন নেতাকর্মী মারা গেলেন। অথচ তিনি আওয়ামী লীগের কারসাজি বলে জাতিকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছেন।  খালেদা জিয়ার এমন নির্লজ্জ মিথ্যাচার জাতি সেদিন মুখ বুঝে সহ্য করলেও মেনে নেয়নি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, বিএনপি প্রকৃত ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য জজ মিয়া নাটক তৈরি করল। কিন্তু সত্য চিরকালই সত্য। আজ ন্যাক্কারজনক এই গ্রেনেড হামলার মামলায় বিএনপি-জামায়াত স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের ১৯ আসামির ফাঁসির দন্ড দিয়েছে আদালত। তারেক জিয়াসহ আরো ১৯ আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায়ে মোট ৪৯ জনের সাজা হয়েছে।

আজ ন্যাক্কারজনক এই হামলায় শহীদদের ১৬তম শাহাদাত বার্ষিকী দিবসে আমি সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই – দন্ডপ্রাপ্ত আসামিদের রায় দ্রুত সময়ে কার্যকর করা হোক। এতে শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে।

২৮ নং পাঠানটুলী ওয়ার্ড সহসভাপতি একেএম ফজলুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় শ্রমিক লীগ সহসভাপতি শফর আলী, নগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ। অনুষ্ঠানে ২৮ নং পাঠানটুলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা,সাবেক কাউন্সিলর  আবদুল কাদের, সিরাজুদ্দৌলা সিরু, মহানগর আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের আহবায়ক আমিনুল হক বাবুল, সভাপতি মোহাম্মদ আলী, যুবলীগ নেতা হাজী আবদুল মান্নান, ছাত্র লীগ নেতা আবদুল গণি রিপন, অভিউর রহমান কামাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...