বান্দরবানে বিক্ষোভের মুখে ইউএনডিপির ত্রাণ বিতরণ স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার নয়াবাজার ইউনিয়নে পাহাড়ি-বাঙালি দ্বন্দ্বের কারণে বাঙালিদের বিক্ষোভের মুখে ত্রাণ বিতরণ স্থগিত করেছে ইউএনডিপি।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) সকালে আলীকদমের নয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে প্রায় এক হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করার সময় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ত্রাণ বিতরণে পাহাড়ি-বাঙালি বৈষম্যের অভিযোগে এ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন স্থানীয় বাঙালিরা। পরে ত্রাণের গাড়িটি অন্যত্র সরিয়ে নিতে চাইলে বাধা দেয় বাঙালিরা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ইউএনডিপি বৈষম্যে সৃষ্টি করে প্রায় এক হাজার ৫শ’ ৫৮ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ দিয়েছে, যার অধিকাংশই ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী। হাতেগোনা মাত্র চার থেকে পাঁচ জন বাঙালি পরিবার রয়েছে।

তারা বলেন, এবারে আলীকদম উপজেলায় সাত হাজার ৬০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ দেওয়ার জন্য তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে নয়াপাড়া ইউনিয়নে এক হাজার ৫শ’ ৫৮ পরিবারের যে তালিকা করা হয় তাতে অনিয়ম ও সাম্প্রদায়িক বৈষম্যের সৃষ্টি করেছে ইউএনডিপি।’ তাই ত্রাণ বিতরণস্থলে শুক্রবার সকাল ১০টার সময় বিক্ষোভ করেন তারা।

প্রায় তিন ঘণ্টা পর আলীকদম সেনা জোনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিত শান্ত হয়। পরে তালিকা সংশোধন করে নয়াপাড়া ইউনিয়নে শনিবার (২২ আগস্ট) ত্রাণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য থোয়াইচাহ্লা মার্মা, ইউএনডিপির জেলা সমন্বয়ক খুশিরায় ত্রিপুরা, ইউপি চেয়ারম্যান ফোগ্য মার্মা ও ইউপি মেম্বাররা।

এ বিষয়ে নয়াপাড়া ইউনিয়নের সদস্য ইছহাক আহমদ ও আক্তার আহমদ বলেন, ইউএনডিপির কর্মীরা যে তালিকা করেছেন তাতে আমাদের মতামত নেওয়া হয়নি। তালিকায় একই পরিবারের একাধিক সদস্যের নাম ও জাতিগত বৈষম্য করা হয়েছে। আমরা এ তালিকা সংশোধনের দাবি জানাচ্ছি।

বিক্ষোভকারী মো. ইলিয়াছ ও ফজল কাদের বলেন, বিগত দিনেও আলীকদমে ইউএনডিপির সুযোগ-সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে জাতিগত বৈষম্য করা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফোগ্য মার্মা বলেন, ইউএনডিপির তালিকা তাদের নিজস্ব কর্মী দিয়ে করা হয়েছে। তালিকা প্রণয়নে অনিয়ম হলে এর দায়ভার ইউনিয়ন পরিষদের নয়।

ইউএনডিপির জেলা সমন্বয়ক খুশিরায় ত্রিপুরা বলেন, ইউএনডিপি বান্দরবান জেলায় সাড়ে ৪৬ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ দিচ্ছে। মাঠ পর্যায়ে কর্মীদের তালিকা প্রণয়নে হয়তো কিছুটা ত্রুটি-বিচ্যুতি হতে পারে। তবে পাহাড়ি-বাঙালির মধ্যে যে বৈষম্যের কথা বলা হচ্ছে তা সঠিক নয়।

উল্লেখ্য, করোনাকালীন সময়ে বান্দরবানে ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ৪৬ হাজার ৫০০ পরিবারের মাঝে জাতিসংঘ অঙ্গ সংস্থা ইউএনডিপির মাধ্যমে ত্রাণ বিতরণের উদ্যোগ নেয়।

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...