আসছে অ্যান্ড্রয়েড-১১, নাম কী হবে?

প্রযুক্তি ডেস্কঃ  প্রযুক্তি খাতেও ২০২০ সালটা কিছুটা অন্যরকমভাবে যাচ্ছে।  অ্যান্ড্রয়েডের বেলায়ও ব্যতিক্রম হচ্ছে না— বিশেষ করে নামের বেলায়। শিগগিরই আসছে অ্যান্ড্রয়েড-১১।  ড্রয়েড লাইফকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অ্যান্ড্রয়েডের প্রকৌশল বিভাগের ভিপি ডেভ বুর্ক অ্যান্ড্রয়েড-১১ এর ইন্টারনাল কোডনেম উন্মোচন করেন, যার নাম রেড ভেলভেট কেক।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানায়, বছরের পর বছর ধরে এমন মিষ্টিদ্রব্যের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নামকরণ করে আসছে অ্যান্ড্রয়েডের, যেমন- ২০০৯ সালে অ্যান্ড্রয়েড ১.৫ এর নাম ছিল কাপকেক।

তবে গত বছর থেকে নির্মাতা গুগল তার সেই ঐতিহ্য থেকে সরে আসছে। সেবার অ্যান্ড্রয়েড ‘কিউ’-এর অফিসিয়াল নাম রাখা হয় অ্যান্ড্রয়েড-১০।  এবছরও তার ধারাবাহিকতায় অ্যান্ড্রয়েডের অফিসিয়াল নাম হবে অ্যান্ড্রয়েড-১১।

এ বিষয়ে গুগল অ্যান্ড্রয়েডের পণ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ভিপি সামির সামাত গত বছর বলেন, ‘এখনও তারা কোড নেমের ক্ষেত্রে বিভিন্ন মিষ্টান্নদ্রব্যের নামই ব্যবহার করছেন।’ বুর্ক জানান, অ্যান্ড্রয়েড ‘কিউ’ -এর ইন্টারনাল নাম ছিল কুইন্স টার্ট, যাকে প্রায়ই কুইন কেক বলে ডাকা হতো। তবে গত বারের ধারাবাহিকতায় এবারের অ্যান্ড্রয়েডটির নাম ‘অ্যান্ড্রয়েড আর’ হতে পারে।

এদিকে, কয়েক মাস আগে অ্যান্ড্রয়েড ১১ অপারেটিং সিস্টেমটির নতুন সংস্করণ উন্মুক্ত করেছে গুগল। অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেটা সংস্করণের নতুন ফিচারগুলোতে  যা থাকছে-

১। ভয়েস অ্যাকসেস: অনেকেই আছেন যারা গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করে তাদের ফোনটি সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রণ করেন। এ নতুন ফিচার আপনার ব্যবহারের অভিজ্ঞতাকে আরও দারুণ করে তুলবে।

২। নোটিফিকেশন শেড কনভারসেশন: এ নতুন ফিচার মূলত নোটিফিকেশন ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে। যে অ্যাপের মাধ্যমে আপনি কথা বলছিলেন, সেটি ফোনের স্ক্রিনে ‘বাবল’ আকারে থাকবে; যা আপনি হোমস্ক্রিনে শর্টকাট করে নিতে পারবেন।

৩। ডিভাইস ও মিডিয়া কন্ট্রোল: এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীর হাতে অনেক বেশি নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আসবে। এ ছাড়া মিডিয়া কন্ট্রোল ফিচারের মাধ্যমে অডিও ও ভিডিওর মধ্যে সহজেই অদল-বদল করা সম্ভব হবে।

৪। শেয়ার মেন্যু পিন: অ্যান্ড্রয়েড ১০ ডেভেলপার প্রিভিও-তে এ ফিচারটি দেয়া হলেও শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত সংস্করণে তা পাওয়া যায়নি। এখন গুগলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, আসছে সংস্করণে শেয়ারিং মেন্যুতে একসঙ্গে প্রয়োজনে চারটি অ্যাপ পিন করে রাখার ব্যবস্থা থাকছে।

৫। চ্যাট ব্যাবল: নতুন ফিচারটির মাধ্যমে ব্যবহারকারী এখন থেকে যে কোনো মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশনে আরও সহজে যোগাযোগ করতে পারবেন।

এ ছাড়া অ্যাপ পারমিশন, স্ক্রিন রেকর্ডিং, মোশন সেন্স জেসচার, রুটিন ডার্ক মোড, রিলিজ ডেট, রঙিন কুইক সেটিং টাইলস সুবিধা থাকছে।

 

যেসব ফোনে অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেটা দেয়া হয়েছে: শাওমির তিনটি এবং অপোর দুটি মডেলে অ্যান্ড্রয়েড বেটা ১১ পাওয়া যাবে। শাওমির মি১০ ফাইভ জি, মি১০ প্রো ফাইভ জি এবং পোকো এফ২ প্রো ফোনে পরীক্ষামূলকভাবে অ্যান্ড্রয়েড ১১ আপডেট দেয়া হবে। এ ছাড়া অপোর ফাইন্ড এক্স২ এবং ফাইন্ড এক্স২ প্রো ফোনে অ্যান্ড্রয়েডের নতুন সংস্করণটি কাজ করছে

 

 

 

 

 

 

 

Loading...