রাইফার মৃত্যু : দুই বছরেও পুলিশের তদন্ত শেষ না হওয়ায় সিইউজে’র ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দুই বছরেও শিশু রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশের তদন্ত শেষ না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা। সোমবার এক বিবৃতিতে অতিদ্রুত মামলাটির তদন্ত শেষ করে দোষীদের শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক ম. শামসুল ইসলাম।

যৌথ বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, দুই বছর বয়সী শিশুকন্যার মৃত্যুর পর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও সিভিল সার্জনের গঠিত দু’টি কমিটির প্রতিবেদনে ম্যাক্স হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা এবং হাসপাতালটির কতিপয় চিকিৎসকের অবহেলার বিষয়টি উঠে এসেছে।

এরপরও এখন পর্যন্ত হাসপাতাল ও অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। বরং রহস্যজনকভাবে দুই বছরেও পুলিশ এ ঘটনায় আদালতে প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি। পুলিশের গাফেলতির কারণে দীর্ঘদিন প্রতিবেদন না পাওয়া আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল রাইফার মা-বাবাসহ বিচারপ্রত্যাশী সাধারণ মানুষকে হতাশ করবে।

নেতৃবৃদন্দ বলেন, দেশে প্রায়ই চিকিৎসা অবহেলায় মানুষের প্রাণহানিসহ নানা ভোগান্তির কথা উঠে আসে। এসব অবহেলার সুষ্ঠু বিচার যদি ভুক্তভোগীরা না পায় তবে মানুষের ভোগান্তি যেমন বাড়বে, তেমনি দেশমানুষের সেবায় নিয়োজিত নিষ্ঠাবান চিকিৎসকদের নিয়ে মানুষের মধ্যে ভুল ধারণা তৈরি হবে।

গলা ব্যথা নিয়ে ২০১৮ সালের ২৮ জুন চট্টগ্রাম নগরের ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয় রাইফাকে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৯ জুন মধ্যরাতে মারা যান রাইফা। মৃত্যুর পর পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর দুই দফা ভুল চিকিৎসার স্বীকার হয়ে মৃত্যু হয়েছে রাইফার। এ অভিযোগে চট্টগ্রামের চকবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন রাইফার বাবা রুবেল খান।

মামলায় হাসপাতালে কর্তব্যরত শিশু বিশেষজ্ঞ বিধান রায় চৌধুরী,  চিকিৎসক দেবাশীষ সেন,  শুভ্র দেব এবং ম্যাক্স হাসাপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লিয়াকত আলী খানকে আসামী করা হয়েছিলো।

এসএএস/এএমএস

Loading...