৫৪ দেশের জন্য দ্বার খুললেও কপাল খুলেনি বাংলাদেশের

ডেস্ক নিউজ: চলমান করোনা পরিস্থিতি বিশ্বজুড়ে নেমে এসেছে স্থবিরতা। করোনা আতঙ্কে বিশ্বের বড় বড় শহরগুলো পরিণত হয়েছে নির্জন নগরীতে। তবে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আগামী ১ জুলাই থেকে সীমান্ত খুলে দিতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। কিন্তু ইইউ দেশগুলোতে প্রবেশের জন্য যে ৫৪টি দেশের খসড়া তালিকা করা হয়েছে, তাতে বাংলাদেশের নাম নেই। বাদ পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও ব্রাজিলের নামও।

কিন্ত করোনার উৎপত্তিস্থল চীন এবং ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাওয়া ভারতের নাম। ঠাঁই পেয়েছে করোনা মোকাবিলায় সফল নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনাম ও ভুটানের সঙ্গে।

ইউরো নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,গত বৃহস্পতিবার কোন কোন দেশের নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ হবে, এ নিয়ে সমাঝোতায় পৌঁছাতে পারেননি ইইউ কর্মকর্তারা। তবে মহামারি পরিস্থিতি ভালো-এমন দেশগুলোর ব্যাপারে একমত হয়ে ওই তালিকাটি তৈরি করেছেন তারা। আগামী সপ্তাহ থেকে ওই তালিকায় থাকা দেশের নাগরিকরা ইউরোপে প্রবেশ করতে পারবেন।

খসড়া তালিকায় থাকা দেশগুলো হলো, আলবেনিয়া, আলজেরিয়া, অ্যান্ডোরা, এঙ্গোলা, অস্ট্রেলিয়া, বাহামা, ভুটান, বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা, কানাডা, চীন, কোস্টারিকা, কিউবা, উত্তর কোরিয়া, ডোমিনিকা, মিশর, ইথিওপিয়া, জর্জিয়া, গায়ানা, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জ্যামাইকা, জাপান, কাজাখস্তান, কসাভো, লেবানন, মরিশাস, মোনাকো, মঙ্গোলিয়া, মন্টিনিগ্রো, মরক্কো, মোজাম্বিক, মায়ানমার, নামিবিয়া, নিউজিল্যান্ড, নিকারাগুয়া, পালাউ, প্যারাগুয়ে, রুয়ান্ডা, সেন্ট লুসিয়া, সার্বিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, তিউনিশিয়া, তুরস্ক, তুর্কমেনিয়া, উগান্ডা, ইউক্রেন, উরুগুয়ে, উজবেকিস্তান, ভ্যাটিকান সিটি, ভেনেজুয়েলা, ভিয়েতনাম ও জাম্বিয়া।- এএ/

Loading...