পুলিশ ক্রসফায়ার না দিলে আমিই নিজেই ছেলেকে গুলি করে মারতাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: আমার ছেলেকে পুলিশ ক্রসফায়ার না দিলে আমি নিজেই গুলি করে মারতাম। সে শুধু এলাকার লোকজনকেই জ্বালায়নি, আমাকে, তার মা, ভাই-ভাবিকেও ছুরি দিয়ে বার বার আঘাত করার চেষ্টা করেছে। তার জ্বালায় আমরা অতিষ্ঠ। সে ক্রসফায়ারে মারা গেছে এতে আমার কোনো দুঃখ নেই। তাকে আরো আগে গ্রেপ্তার করলে মোসাদ্দেককে খুন করতে পারত না। আমাদের (বাবা-মাকে) দোষারূপ করার জন্যই তাকে এতদিন গ্রেপ্তার করা হয়নি। তার ক্রসফায়ারে আমি প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই।

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার আলোচিত মাদকবিরোধী আন্দোলনের নেতা মোসাদ্দেকুর হত্যার আসামি আব্দুল হান্নান সোহেল ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ার পর তার বাবা মোহাম্মদ আলী এ মন্তব্য করেন।

এর আগে গত ২২ জুন মোসাদ্দেককে ছুরিকাঘাত করে হত্যার পর পালিয়ে যান সোহেল। গত শনিবার মধ্যরাতে সাতকানিয়া থানা ওসি মো. শফীউল কবিরের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাঙ্গুনিয়ার পাহাড়ি এলাকা থেকে সোহেলকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। এর পর রাতে তার স্বীকারোক্তি মতে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করতে গেলে সহযোগীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। এতে সহযোগীদের গুলিতে সোহেল নিহত হয়েছেন বলে দাবি পুলিশের।

গতকাল শনিবার ময়নাতদন্তের পর পুলিশ সোহেলের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। এর পর পরিবারের হাতেগোনা কয়েকজন লোক জানাজা পড়ে তাকে দাফন করে।
এদিকে স্থানীয়দের বাধার মুখে সামাজিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা যায়নি। জানাজায় অংশ নেয়নি স্থানীয়রা।

এদিকে নিহত মোসাদ্দেকুর রহমানের বাবা তার ছেলে হত্যার মূল আসামি সোহেল ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

Loading...