চালের আড়তে নেই মূল্য তালিকা, জরিমানা ১০ হাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম নগরীর চাক্তাই চালের আড়তে মূল্য তালিকা না রাখার অভিযোগে দুই আড়তদারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

আজ রোববার (২১ জুন) সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুকের নেতৃত্বে চালপট্টি চাক্তাই চালের আড়তে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা হয়।

চালের আড়তে নেই মূল্য তালিকা, জরিমানা ১০ হাজার

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, চালের দামের লাগাম টানতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক বলেন, অভিযানে মূল্য তালিকা না থাকার কারণে মেসার্স আফসর এন্ড ব্রাদার্স ও মাসুদ এন্ড ব্রাদার্স এর মালিক দুই আড়তদারকে ৫ হাজার টাকা করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে আড়তদারদের ক্রয় রশিদ ও বিক্রয় রশিদ যাচাই করা হয় সাথে কয়েক মাসের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। এর কারণ হচ্ছে তারা দাম বৃদ্ধি করছে কি না তা দেখার জন্যে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, দেশের এ ক্লান্তিলগ্নে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী আছে যারা সুযোগ খুজে কিভাবে কম সময়ে অতিরিক্ত মুনাফা করবে। কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে চাক্তাই বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। যদিও অভিযোগের তীর উত্তরবঙ্গ, রাজশাহী, নারায়ণগঞ্জ ও আশুগঞ্জ এর মিল মালিকদের দিকে। আড়তদাররা জানায়, বর্তমানে চালের দামে ভারসাম্য আছে। যদিও দাম কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে তা মিল মালিকদের কারণে। এক বাক্যে সবাই মিল মালিকদের কারসাজির কথা উল্লেখ করেন।

ব্যবসায়ীরা বলেন, তারা দাম বাড়ালে আমাদেরও বেশি দামে চাল কিনতে হয়।ফলে বাজারে তার প্রভাব পড়ে। তিনি আরো জানান, মিল মালিকদের কারসাজির জন্যে পাইকারি বাজার ও খুচরা বাজারে দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

চট্টগ্রামের চালের বাজার স্থিতিশীল থাকলেও বাজার অস্থিতিশীল করতে কেউ দাম বৃদ্ধির পায়তারা করে সাধারণ মানুষের কষ্ট বাড়ালে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কয়েকটি দোকানে প্রবেশ করে ওএমএস এর চাল মজুদ আছে কিনা দেখা হয় যদিও তা পাওয়া যায়নি।

চালের আড়তদারদের চালের দাম না বাড়াতে অনুরোধ করা হয় অন্যতায় যারা অনিয়ম করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলা প্রশাসনের এই কর্মকর্তা।

Loading...