আজ সূর্যগ্রহণ, খালি চোখে না দেখার নির্দেশ

আজ বলয় সূর্যগ্রহণ ঘটবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে। তবে খালি চোখে সূর্যগ্রহণ দেখতে নিষেধ করেছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ এতে চোখের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

রোববার (২১ জুন) সূর্যগ্রহণ শুরু হবে কঙ্গোতে, সর্বোচ্চ গ্রহণ হবে ভারতে আর গ্রহণ শেষ দেখা যাবে ফিলিপিনের আকাশে।

আবহাওয়া অধিদফতরের সহকারি আবহাওয়াবিদ রোনাকী খোন্দকার এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান।

গ্রহণের সময় সূর্যকে ঢেকে দেবে চাঁদ। তবে চাঁদের আয়তন ছোট হওয়ায় সূর্য চাঁদের পাশ দিয়ে আলো ছড়াবে। ফলে আকাশে আংটির মতো আকৃতি তৈরি হবে। ইংরেজিতে যাকে বলে ‘রিং অব ফায়ার’।

সকাল ৯টা ৪৬ মিনিট ৬ সেকেন্ডে কঙ্গোর ইম্পফোল্ডো শহরে শুরু হবে সূর্যগ্রহণ। কেন্দ্রীয় গ্রহণ শুরু হবে কঙ্গোর বোমা শহরে ১০টা ৪৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে। সর্বোচ্চ গ্রহণ ভারতের যোশীমঠ শহরে দেখা যাবে ১২টা ৪০ মিনিট ৬ সেকেন্ডে। কেন্দ্রীয় গ্রহণ শেষ হবে ফিলিপিনের সামার শহরে ২টা ৩১ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে। আর সূর্যগ্রহণটি শেষ হবে ফিলিপিনের মিন্দানাও শহরে ৩টা ৩৪ মিনিটে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আকাশ পরিষ্কার থাকলে বাংলাদেশের আকাশেও আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। এক্ষেত্রে ঢাকায় কেন্দ্রীয়গ্রহণ হবে ১টা ১২ মিনিট ২৯ সেকেন্ডে, ময়মনসিংহে ১টা ১২ মিনিট ১৩ সেকেন্ডে, চট্টগ্রামে ১টা ১৭ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে।

এছাড়া সিলেটে ১টা ১৬ মিনিট ৫০ সেকেন্ডে, খুলনায় ১টা ৯ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডে, বরিশালে ১টা ১২ মিনিট ৩২ সেকেন্ডে, রাজশাহীতে ১টা ৬ মিনিট ২৬ সেকেন্ডে এবং রংপুরে ১টা ৭ মিনিট ২০ সেকেন্ডে কেন্দ্রীয় সূর্যগ্রহণ হবে। বাংলাদেশে বিভিন্ন সংগঠন, বিশ্ববিদ্যালয়, বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় সূর্যগ্রহণ দেখার আয়োজন করেছে।

এবারের সূর্যগ্রহণের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সতর্কতা নিতে বলা হয়েছে। কারণ এই সূর্যগ্রহণ আংশিক নয়, এমনকী পূর্ণগ্রাসও নয়, আজকেরটি বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ। বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এটি খালি চোখে দেখলে চোখ খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা তো থাকেই, এমনকি অন্ধত্ব হওয়াও বিচিত্র নয়।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী বলেন, ‘করোনা সংক্রমণের কারণে এবার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে কোনো পর্যবেক্ষণ ক্যাম্পের আয়োজন করা হবে না। তবে এখানে কর্মরতদের জন্য সীমিত পরিসরে গ্রহণ পর্যবেক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

Loading...